প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দিনাজপুরে পেশার কুকারেই তৈরি হচ্ছে ভাপা পিঠা

দিনাজপুর প্রতিনিধি: কনকনে শীতে কাতর শীতার্ত মানুষ সন্ধ্যার পর ফুটপাত দোকানগুলোতে ভাপা ও চিতাই পিঠা খেয়ে শীত নিবারনের চেষ্টা চালাচ্ছে তখন দিনাজপুরে গৃহবধু সালমা বেগম নতুন উদ্ভাবনী কায়দায় ভাপা পিঠা তৈরি করে পরিবারের চাহিদা মেটাচ্ছে।

এ নতুন উদ্ভাবনী নিয়ম প্রতিটি বাড়িতে আকৃষ্ট করে তুলেছে। দিনাজপুর শহরের ঘাসিপাড়া মহল্লার সালমা বেগম পেশার কুকারে শীশ দিয়ে ভাপা পিঠা তৈরি করছে।

সালমা জানান, সন্ধার পর শহরের যত্রতত্র চুলা তৈরি করে ভাপা পিঠা তৈরি করছে। এই ভাপা পিঠা ক্রয় করতে ঘন্টার পর ঘন্টা অপেক্ষা করতে হয়। অনেক স্থানে লাইন লাগিয়ে ভাপা পিঠা নিতে হয়। দেরি হওয়ার কারনে সন্তানেরা ভাপা পিঠার অপেক্ষায় থেকে ঘুমিয়ে পরে। বাড়ির অভিভাবকরা বিরক্তবোধ করেন।

জানা যায়, ভাপা পিঠা তৈরির ক্ষেত্রে সহজ ও সময়ের কালক্ষেপনকে রোধ করতেই এই নতুন নিয়ম উদ্ভাবন করা হয়েছে। পেশার কুকারে শীটির স্থানে তেল ঢালার কাক সংযোগ করে খুব দ্রুত এবং সহজ উপায় ভাপা পিঠা তৈরি করা যায়। একটি ভাপা পিঠা তৈরি করতে সময় লাগে ৪০ থেকে ৫০ সেকেন্ট। দোকানে গিয়ে অপেক্ষা না করে ঘরে বসেই সহজভাবেই এই ভাপা পিঠা পেশার কুকারে তৈরি করা সম্ভব।

পেশার কুকারে ভাপা পিঠা তৈরির এ নিয়মটি এখন দিনাজপুরে আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। পেশার কুকারেই তৈরি হচ্ছে ভাপা পিঠা। পেশার কুকারে ভাপা পিঠা তৈরির উদ্ভাবক সালমা বেগম দিনাজপুরে যুব উন্নয়নে ক্রেডিড সুপাইভাইজারের চাকুরী করেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত