প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কোনোভাবেই বন্ধ করা যাবেনা ‘পদ্মাবৎ’র মুক্তি, চূড়ান্ত নির্দেশ সুপ্রিমকোর্টের

আশিস গুপ্ত ,নয়াদিল্লি : আইনি জট পেরিয়ে ভারত জুড়ে মুক্তির স্বাদ পেতে তৈরি ‘পদ্মাবত’। কিন্তু শেষ মুহূর্তেও বিতর্ক পিছু ছাড়ছিল না।এক দিকে, ২৫ জানুয়ারি ছবির মুক্তি আটকাতে ফের সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ হয়েছিল রাজস্থান ও মধ্যপ্রদেশ। অন্য দিকে, দেশের নানা প্রান্তে বিক্ষোভ আর তাণ্ডবও জারি রেখেছে রাজপুতদের সংগঠন করণী সেনা।

এই পরিস্থিতিতে মঙ্গলবার ‘পদ্মাবত’কে বাড়তি অক্সিজেন জোগাল ভারতের সুপ্রিম কোর্ট ।মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট জানিয়েছে, সব রাজ্য সরকারকে ‘পদ্মাবত’-এর মুক্তির ব্যবস্থা করতেই হবে। আইনশৃঙ্খলার দোহাই দিয়ে যাঁরা ছবির মুক্তি আটকাতে বদ্ধপরিকর, বিশেষ করে তাঁদের প্রতি সুপ্রিম কোর্টের বক্তব্য, ‘‘এটা আদালতের নির্দেশ, মেনে চলাটাই কাম্য। আপনারা দর্শককে ছবি না দেখার অনুরোধ করতে পারেন।’’

আদালতের আরও মন্তব্য, ‘‘আদালতের নির্দেশ পালন করাটা সরকারের কর্তব্য।’’ ছবির ট্রেলার মুক্তির পরই রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ, গুজরাত আর হরিয়ানা সরকার জানিয়েছিল তারা তাদের রাজ্যে ছবিটি নিষিদ্ধ করতে চায়। কিন্তু গত ১৮ জানুয়ারি সুপ্রিম কোর্ট একটি নির্দেশ জারি করে জানিয়ে দিয়েছিলো , শুধুমাত্র আইন-শৃঙ্খলার অবনতির দোহাই দিয়ে কোনও রাজ্য একটি ছবির মুক্তি নিষিদ্ধ করতে পারে না। সোমবার শীর্ষ আদালতের সেই রায়ের বিরুদ্ধে আবেদন করেছিল মধ্যপ্রদেশ এবং রাজস্থান সরকার। তৃতীয় আবেদনকারী ছিল করণী সেনা। এ দিন রাজস্থান, মধ্যপ্রদেশ ও করণী সেনার সব আবেদন খারিজ করে দিয়েছে সুপ্রিম কোর্ট।দেশের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র জোর দিয়ে বলেছেন, ‘‘আমরা কোনও নির্দেশ দিলে সেটা সকলের মেনে চলাটাই কাম্য।’’

তিনি আরও বলেছেন, ‘‘যে কেউ এসে আইনশৃঙ্খলার অবনতির কথা বলে একটি ছবিকে নিষিদ্ধ করার কথা বলতে পারেন না। সেন্সর বোর্ডের অনুমতি পাওয়ার পর একটি ছবির প্রদর্শনী রাজ্য কখনওই বন্ধ করা যায় না।’’উল্লেখ্য ,সেন্সর বোর্ডের ছাড়পত্র পাওয়ার পরেও রাজস্থান ,মধ্যপ্রদেশ ,ছত্তিসগড় ও গুজরাট সরকার ছবিটি নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছিলো। গত সপ্তাহে ওই নিষেধাজ্ঞা খারিজ করে দিয়েছিলো সুপ্রিম কোর্ট।

সর্বাধিক পঠিত