প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ডিবি পরিচয়ে ব্যবসায়ীকে অপহরণ করে মুক্তিপণ আদায়

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল : ভুয়া ডিবি পুলিশ পরিচয়ে এক ওষুধ ব্যবসায়ীকে অপহরণের পর একটি ঘরে আটক করে মোটা অংকের টাকা মুক্তিপণ আদায় করা হয়।

মঙ্গলবার দিনভর বিষয়টি নিয়ে টক অব দ্যা টাউনে পরিণত হয়েছে। সোমবার রাতে জেলার গৌরনদী পৌর সদরের টিএন্ডটি অফিস সংলগ্ন এলাকায় অপহরণের ঘটনাটি ঘটেছে ।

মদিনা মেডিকেল হলের মালিক মোঃ তুহিন জানান, সোমবার মাগরিবের নামাজের পর উত্তর পালরদী গ্রামের কালাম মিয়ার পুত্র বেল্লাল মিয়া, একই এলাকার সাগর সরদার ও আশোকাঠী এলাকার কালু বেপারীর পুত্র রিপন বেপারী তার ব্যবসায়ীক প্রতিষ্ঠানে এসে প্রথমে নিজেদের ডিবি পরিচয় দিয়ে বলেন, ওষুধ ব্যবসার অন্তরালে এখানে জামায়াত-শিবিরের কার্যক্রম পরিচালিত হয় বলে তাদের কাছে অভিযোগ রয়েছে। এনিয়ে তার (তুহিন) সাথে ওই তিন যুবকের কথা কাটাকাটি হয়।

তুহিন আরও জানান, এসময় তার প্রতিষ্ঠানে আসা এক ব্যক্তি বেল্লালকে চিনে ফেলায় তাৎক্ষনিক ওই তিন যুবক গৌরনদী পৌরসভার মেয়র তাদের পাঠিয়েছে বলে জানিয়ে তুহিনকে টানা হেঁচড়া শুরু করেন। একপর্যায়ে তিনি (তুহিন) পৌর মেয়রের সাথে ফোনে কথা বলার বিষয়টি জানালে ওই তিন যুবক তাকে মারধর করে জোরপূর্বক অপহরণ করে নিয়ে যায়।

সূত্রে আরও জানা গেছে, ব্যবসায়ী তুহিনকে আশোকাঠী এলাকার রিপনের শ্বশুর এনায়েত খানের বাড়িতে আটকে রেখে ২০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করা হয়। এনিয়ে একটি সাদা স্টাম্পেও তুহিনের স্বাক্ষর নেয়া হয়েছে। পরবর্তীতে এক লাখ ৪০ হাজার টাকা পরিশোধ করার পর তুহিনকে গভীর রাতে ছেড়ে দেয়া হয়।

ব্যবসায়ী তুহিন আরও জানান, তার কাছ থেকে নেয়া মুক্তিপণের টাকা স্থানীয় এক পৌর কাউন্সিলর ফেরত দেয়ার আশ্বাস দিয়ে এ ব্যাপারে মামলা না করার জন্য বিভিন্ন ধরনের হুমকি অব্যাহত রেখেছেন।

গৌরনদী মডেল থানার ওসি মোঃ মনিরুল ইসলাম জানান, ব্যবসায়ী তুহিনকে অপহরণের খবর পেয়ে পুলিশ অভিযান চালিয়ে আশোকাঠী এলাকা থেকে তাকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসেন। পরবর্তীতে অপহরণ ও মুক্তিপণের বিষয়টি শুনে সংশ্লিষ্ট উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের অবহিত করা হয়েছে।

ওসি আরও জানান, ব্যবসায়ী তুহিনকে থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। সম্পাদনা: উমর ফারুক রকি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত