প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সংসদে আইনমন্ত্রী
ইসির চেয়ে মন্ত্রীর তথ্যে নতুন ভোটার ১০ লাখ কম

আসাদুজ্জামান সম্রাট : জাতীয় সংসদে নতুন ভোটার প্রসঙ্গে নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের (ইসি) দায়িত্বপ্রাপ্ত আইনমন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হকের দেয়া তথ্যে বিভ্রান্তি তৈরি হয়েছে। কমিশন ঘোষিত ভোটারের তুলনায় মন্ত্রীর দাবি করা নতুন ভোটারের সংখ্যা প্রায় ১০ লাখ কম।

সোমবার জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে মন্ত্রী আনিসুল হক এ তথ্য দেন। নিজাম উদ্দিন হাজারীর প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, ২ জানুয়ারি প্রকাশিত খসড়া ভোটার তালিকা অনুযায়ী দেশের মোট ভোটার সংখ্যা ১০ কোটি ৪০ লাখ ৫১ হাজার। খসড়া তালিকা অনুযায়ী নতুন ভোটরের সংখ্যা ৩৩ লাখ ৩২ হাজার ৫৯৩।

এর আগে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ ঢাকার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, হালনাগাদে এবার ভোটার তালিকায় যুক্ত হয়েছে ৪২ লাখ ৯৪ হাজার ৮৮৯ জন নতুন ভোটার। এদের মধ্যে ৩৩ লাখ ৩২ হাজার ৫৯৩ জনের তথ্য গতবছর এবং ৯ লাখ ৬২ হাজার ২৯৬ জনের তথ্য ২০১৫ সালে সংগ্রহ করা হয়।

ঢাকায় দেড় শতাধিক নতুন পাবলিক টয়লেট করা হবে

রাজধানীতে জনসংখ্যার অনুপাতে পাবলিক টয়লেটের অপ্রতুলতার কথা স্বীকার করে স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী খন্দকার মোশাররফ হোসেন জানিয়েছেন, ঢাকা সিটি কর্পোরেশন (ডিসিসি) উত্তর ও দক্ষিণের মাধ্যমে এ সঙ্কট কাটাতে উদ্যোগী হয়েছে সরকার। ঢাকা মহানগরীতে নির্মাণ করা হচ্ছে দেড় শতাধিক নতুন পাবলিক টয়লেট। এগুলোকে মহিলা ও প্রতিবন্ধীবান্ধব হিসেবে তৈরীর করা হচ্ছে।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, জায়গার অপ্রতুলতার কারণে নতুন পাবলিক টয়লেট নির্মাণের স্থাপন নির্বাচন করা একটি প্রধান সমস্যা। বিদ্যমান টয়লেটগুলোর অধিকাংশ ইজারাদারের বিরুদ্ধে মামলা বা হাইকোর্টেও স্টে অর্ডার থাকায় সেগুলো ভেঙে নতুনভাবে নির্মাণ করতে দেরী হচ্ছে।

তিনি জানান, ডিসিসি উত্তরে মোট ৩৭টি পাবলিক টয়লেট রয়েছে। প্রতিটিতে নারীদের জন্য স্বতন্ত্র ব্যবস্থা রয়েছে। তবে জনসংখ্যার অনুপাতে টয়লেটের সংখ্যা পর্যাপ্ত নয়। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের উন্মুক্ত স্থানগুলোর আধুনিকায়ন, উন্নয়ন ও সবুজায়ন প্রকল্পের মাধ্যমে আরো ৭৩টি পাবলিক টয়লেট নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে। অন্যদিকে ডিসিসি দক্ষিণে মোট ৫৩টি পাবলিক টয়লেট রয়েছে। প্রতিটি পাবলিক টয়লেটে এ নাররীদের জন্য স্বতন্ত্র ব্যবস্থা রয়েছে। এছাড়া ডিসিসি দক্ষিণ এলাকায় ৫৯টি পেট্টোল পাম্প ও সিএনজি স্টেশন রয়েছে। ওই সব পাম্প ও স্টেশনের ২টি বাদে সবগুলোতে টয়লেট সুবিধা রয়েছে। যা জনসাধারণ ব্যবহার করতে পারে।

মন্ত্রী বলেন, ঢাকার এই অংশে কর্পোরেশনের পাশাপাশি বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার (এনজিও) মাধ্যমে মোবাইল পাবলিক টয়লেট সেবা দেয়া হচ্ছে। তবু জনসংখ্যার অনুপাতে টয়লেটের সংখ্যা পর্যাপ্ত নয়। তিনি জানান, সম্প্রতি ওয়াটার এইড নামের একটি এনজিওর সাথে ডিসিসি দক্ষিণের মধ্যে ১৫টি আধুনিক পাবলিক টয়লেট নির্মাণ এবং ব্যবস্থাপনা ও রক্ষণাবেক্ষণের চুক্তি সাক্ষরিত হয়েছে। যার অধিকাংশ ইতিমধ্যে উদ্বোধন করা হয়েছে।

খন্দকার মোশাররফ জানান, ডিসিসি দক্ষিণ আধুনিক আরো ৪৭টি পাবলিক টয়লেট নতুনভাবে নির্মাণ ও ১৭টি বিদ্যমান টয়লেট সংস্কারের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এসব টয়লেটকে মহিলা ও প্রতিবন্ধীবান্ধব করা হবে। মন্ত্রী জানান, ডিসিসি দক্ষিণ ১৯টি পার্ক ও ১২টি খেলার মাঠ উন্নয়নের পরিকল্পনা নিয়েছে। এসব পার্ক ও খেলার মাঠেও মহিলাদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থাসম্পন্ন পাবলিক টয়লেটের ব্যবস্থা রাখা হচ্ছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত