প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হিমঘরের ফ্রিজ বিকল, পচন ধরেছে লাশে

ডেস্ক রিপোর্ট: রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের একমাত্র হিমঘরের ফ্রিজগুলো অকেজো হয়ে পড়ে আছে চার দিন ধরে। এতে ফ্রিজের ভেতরে থাকা ১০টি লাশে পচন ধরেছে। ফলে প্রচণ্ড দুর্গন্ধে হিমঘরের আশপাশ দিয়ে চলাচল করাই দায় হয়ে পড়েছে। তবে দু-একদিনের মধ্যেই ফ্রিজ মেরামতের কাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, এক হাজার শয্যাবিশিষ্ট রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালটিতে প্রতিদিনই দুই হাজারের বেশি রোগী থাকছে। গড়ে প্রতিদিন এ হাসপাতালে ৭ থেকে ৮ জন রোগী মারা যায়। মারা যাওয়া বেওয়ারিশ ও মামলা সংক্রান্ত কারণে অনেক লাশ হাসপাতালের ডেথ হাউজ বা হিমঘরের ফ্রিজে মাসের পর মাস রাখতে হয়।

হাসপাতালের নিচতলার পশ্চিম কোণে অবস্থিত ডেথ হাউজটিতে ফ্রিজ রয়েছে তিনটি। শনিবার থেকে হঠাৎ তিনটি ফ্রিজই বিকল হয়ে পড়ায় সংরক্ষিত লাশগুলোতে পচন ধরেছে। দুর্গন্ধে হাসপাতাল কর্মী, রোগী ও স্বজনরা খুবই বিরক্ত।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন এক রোগীর স্বজন মাহমুদ আলী জানান, ‘লাশ পচা দুর্গন্ধে ডেথ হাউজের পাশ দিয়ে চলাচল করাই মুশকিল হয়ে পড়েছে। নাকে রুমাল চেপেও কাজ হচ্ছে না। পুরো পরিবেশই নষ্ট হচ্ছে এই দুর্গন্ধে।’ হিমঘরের কর্তব্যরত ডোম মানু লাল জানান, ফ্রিজগুলো প্রায়ই নষ্ট থাকে। তবে অনেকদিনের পুরনো হওয়ায় এবার সব ফ্রিজ একসঙ্গে নষ্ট হয়ে গেছে।

ডেথ হাউজের কর্মচারী জয়নাল আবেদীন বলেন, ‘ফ্রিজ নষ্ট হওয়ার বিষয়টি আমরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি। লাশ পচা গন্ধে এলাকার পরিবেশ দূষিত হচ্ছে। এখানে ডিউটি করাই অসম্ভব হয়ে পড়েছে।’

এ ব্যাপারে হাসপাতালের পরিচালক ডা. অজয় কুমার রায় বলেন, ‘চার দিন ধরে ডেথ হাউজের ফ্রিজ তিনটি কাজ করছে না। এগুলো মেরামতের জন্য ঢাকায় খবর দেওয়া হয়েছে। আশা করছি, দু-একদিনের মধ্যেই লোক আসবে এবং ফ্রিজগুলো মেরামত করা সম্ভব হবে।’ তবে লাশে পচন ধরার বিষয়ে পরিচালক বলেন, বর্তমানে আবহাওয়া ঠাণ্ডা থাকায় লাশগুলোতে এখনও পচন ধরেনি।

সর্বাধিক পঠিত