প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘ব্যাটা সিটিং কস, যাত্রী ঘাড়ের উপরে ক্যা’

ডেস্ক রিপোর্ট : নগরীজুড়ে সিটিং সার্ভিসের নামে চলছে ‘চিটিং সার্ভিস’। যাত্রীদের কিছু সুবিধার ফুলঝুরি দিয়ে আদায় করা হচ্ছে অতিরিক্ত ভাড়া। যেমন সিটিং সার্ভিসে কাউন্টার ব্যতিত না থামা বা সিটের অতিরিক্ত যাত্রী না উঠানো। অথচ পরে কিছুই মানা হয় না। ফলে নগরবাসীর পড়তে হচ্ছে নানা দুর্ভোগে।

রোববার সরেজমিন ঘুরে দেখা যায়, রাজধানীর বাড্ডা এলাকায় সুপ্রভাত পরিবহনে এক যাত্রী কন্ট্রাক্টরকে উদ্দেশে ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ‘ওই ব্যাটা সিটিং কস, যাত্রী ঘাড়ে ক্যা। আমাদের ঘাড়ে যাত্রী না লইয়ে তোদের মাথায় নে। ১০ টাকার ভাড়া ৩০ টাকা ন্যাস আবার যাত্রী বাসে খাড়াইছে।’ খবর বাংলানিউজ’র।

এসময় অনেক যাত্রীই তার সুরে সুর মিলিয়ে অতিরিক্ত যাত্রী নেওয়ার জন্য ক্ষোভ প্রকাশ করেন। হাতিরঝিল থেকে অতিরিক্ত যাত্রী উঠানোকে কেন্দ্র করেই শুরু হয় বাকবিতণ্ডা। সিটিং সার্ভিসের বাসে লোকালের মতো যাত্রী দাঁড় করিয়ে নেওয়ায় শুরু হয় ঝগড়া।

‘সিটিং সার্ভিস’ প্রতারণায় বাসে ক্ষুব্ধ হওয়া যাত্রীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তার নাম রফিকুল আলম সরদার। বসবাস করেন কালাচাঁদপুরে।

তিনি বলেন, শান্তিনগর থেকে কাঁলাচাদপুরে লোকাল ভাড়া ১০ থেকে ১৫ টাকা, রাখছে ৩০ টাকা। তারপরও ঘাড়ের উপরে যাত্রী দাঁড়াবে এটা হয় না। আমগোর দেখার কেউ নাইকা ভাই।’

রাজধানীর সড়কে ‘সিটিং সার্ভিসে’র নামে যাত্রী হয়রানি বন্ধে সিটি সার্ভিস বন্ধ করা হয়েছিলো। পরে আবারও শুরু হয় সিটিং সার্ভিস। বর্তমানে নগরীতে যাত্রী হয়রানি আরও বেড়েছে।

 

সর্বাধিক পঠিত