প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘সচেতনতার অভাবে শীতকালে মানুষ বেশি পুড়ে’(ভিডিও)

কেএম হোসাইন : বার্ণ ও প্লাস্টিক সার্জন ও প্রধান সম্বন্বয়কারী শেখ হাসিনা বার্ণ ও প্লাস্টিক সার্জারী ইনস্টিটিউট ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, শীতকালে মানুষের পোড়া হার বেশি কথাটা সত্যি। তবে এবার হাড় কাঁপানো শীতে অন্যান্য সময়ের তুলনায় এবার রোগী অনেক বেশি। এত রোগী আগে কখনোই আমি দেখেছি। যদি এই পরিসংখ্যা বলা হয় আজকে আমাদের এখানে রোগী আছে ৫৩০জন। ১০০ শয্যার হাসপাতালে ৫’শ রোগী সবই পোড়া রোগী। তাই অন্য রোগী আমরা ভর্তি নিচ্ছি না। পোড়া রোগীর চাপটা বেশি থাকায়।

জিল্লুর রহমানের সঞ্চালনায় চ্যানেল আইয়ের নিয়মিত অনুষ্ঠান তৃতীয় মাত্রায় তিনি একথা বলেন।

ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, শীতকালে বেশি পোড়ার কারণ অসাবধানতা, অসর্তকতা, সচেতনতার অভাব যেটা অমাদের দেশে অনেক কম। পোড়ার বেশির ভাগ কারণ আগুনের তাপ নিতে গিয়ে, গরম পানি দিয়ে গোসল করার সময়।

রাজনীতিক সহিংসতার সময় পোড়া। ওই সময় তো একটা ভয়াবহ অবস্থা ছিলো। তখন বেশির ভাগ পোড়া রোগীর শ্বাসনালী পুড়ে গেছে। সেই সময় আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা পুড়ে যাওয়া রোগী দেখতে ঢাকা মেডিকেলে আসেন। সেই সময় তিনি জানতে চান এই সমস্ত রোগীদের চিকিৎসায় কত সার্জন আছে। তখন আমরা তাকে এর সংখ্যা অনেক বলি। যারা আছে বেশির ভাগই ঢাকায়। তখন কিভাবে এটা বাড়ানো যায় জানতে চাইলে আমরা তাকে একটা ইনস্টিটিউট করার কথা বলি। যেখানে চিকিৎসা,গবেষণা, পড়া, ডিগ্রি দেওয়া সবই হবে। তারপরে ঢাকা মেডিকেলের পাশে সতের তলা শেখ হাসিনা বার্ণ ইনস্টিটিউট তৈরি করার অনুমোদন দেওয়া হয়। এখান থেকে অনেক বার্ণ সার্জন বের হবে। তাদেরকে সারা দেশে ছড়িয়ে দেওয়া যাবে সে সময় এই রোগীর চাপ অনেকাংশে কমে আসবে।

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত