প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে আতঙ্ক

ডেস্ক রিপোর্ট : চার দিনে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দু’জন কর্মকর্তা নিখোঁজের ঘটনায় মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উচ্চমান সহকারী নাসির উদ্দিন নিখোঁজের তিন দিনের মাথায় গতকাল শিক্ষামন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মোতালেব হোসেন নিখোঁজ হয়েছেন। নিখোঁজের ঘটনায় বনানী ও হাজারীবাগ থানায় পৃথক দু’টি সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছে তাদের পরিবার। গতকাল রাত পর্যন্ত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ওই দু’জনের সম্পর্কে কোনো তথ্য জানাতে পারেনি। গতকাল দুপুরে শিক্ষামন্ত্রীর কক্ষে মন্ত্রণালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা আবু আলম শিক্ষামন্ত্রীকে বলেন, দুইজনকে অপহরণ করা হয়েছে। এরই মধ্যে গত শনিবার বিকেলে আমার বাসায় সাত-আটজন লোক গিয়ে আমাকে খুঁজেছে। আমি বাইরে কোথাও যেতে ভয় পাচ্ছি। এ সময় মন্ত্রী তাকে আশ্বস্ত করেন।

শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের পরপর দুই কর্মী নিখোঁজের বিষয়টি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও পুলিশের মহাপরিদর্শককে (আইজিপি) অবগত করে তাদের উদ্ধারে সহায়তা চাওয়া হয়েছে। শিক্ষামন্ত্রী আরো বলেন, গতকাল (শনিবার) অর্ধবেলা সিলেটে ছিলাম, বিমানবন্দরে পৌঁছেই শুনেছি। শোনার সঙ্গে সঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইজিপি ও র‌্যাবের প্রধানকে ফোন করে জানিয়েছি।

অন্য সহকর্মীরা সংশ্লিষ্ট থানায় জিডি করেছেন। বিষয়টি নিয়ে পুলিশও যথেষ্ট তৎপর রয়েছে। তিনি আরো বলেন, কী কারণে এটা হতে পারে ভুক্তভোগীদের পরিবারের কাছ থেকে এখনো পর্যন্ত তেমন কিছু জানতে পারিনি। আমরা ধারণাও করতে পারছি না। শিক্ষামন্ত্রী বলেন, তাদের পরিবার খুবই উদ্বিগ্ন, সকালে মোতালেবের স্ত্রী-স্বজনরা বাসায় এসেছিলেন। সহকর্মীদের একটি সমিতি আছে, তাদের সঙ্গেও কথা বলেছি। তারাও বলতে পারছেন না সুনির্দিষ্টভাবে বিষয়টি কী হতে পারে। মন্ত্রী বলেন, সবাইকে শান্ত থাকতে বলেছি। কেউ কোনো ক্লু পেলে তা জানাতে অনুরোধ করেছি।

র‌্যাবের মহাপরিচালক অতিরিক্ত আইজিপি বেনজীর আহমেদ দৈনিক ইনকিলাবকে বলেন, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দু’জন কর্মী নিখোঁজ হওয়ার বিষয়টি র‌্যাব গুরুত্ব দিয়ে তদন্ত করছে। তাদের উদ্ধারে প্রযুক্তির সহায়তাসহ সব ধরনের পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে। শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অফিস সহায়ক ও বাংলাদেশ সচিবালয় চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী সমিতির সভাপতি মোহাম্মদ আলী আশঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, এরপর আমাকে অপহরণের শিকার হতে হবে। আমাকে সহকর্মীরা সাবধানে থাকতে বলেছেন। হাজারীবাগ থানার ওসি মীর আলিমুজ্জামান বলেন, গত শনিবার হাজারীবাগের বসিলা এলাকায় নিজের নির্মাণাধীন বাড়ি দেখতে যান শিক্ষামন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মোতালেব হোসেন। সেখান থেকে তাকে গাড়িতে করে তুলে নিয়ে যায়। এই ঘটনায় তার ভাই সাহাবুদ্দিন জিডি করেছেন। জিডি নম্বর ৯৪৬। আমরা তদন্ত শুরু করেছি। সর্বশেষ তার মোবাইলের অবস্থান বসিলায়ই ছিল। বর্তমানে তার মোবাইল ফোনটি বন্ধ।

এ ঘটনায় মোতালেব হোসেন তার ভাই শাহাবুদ্দিন বাদী হয়ে হাজারীবাগ থানায় একটি জিডি করেছেন। জিডিতে বলা হয়েছে, গত শনিবার বিকেল ৪টার দিকে হাজারীবাগ থানাধীন বসিলা ওয়েস্ট ধানমন্ডি হাউজিং এলাকা থেকে অজ্ঞাত ব্যক্তিরা মাইক্রোবাসে করে তাকে উঠিয়ে নিয়ে যায়। এর আগে গত বৃহস্পতিবার (১৮ জানুয়ারি) শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের গ্রহণ ও বিতরণ শাখার উচ্চমান সহকারী নাসির উদ্দিন নিখোঁজ হন। এই ঘটনায় ওই দিন সন্ধ্যায় বনানী থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেন তার শ্বশুর আব্দুল মান্নান খান।

জিডিতে উল্লেখ করা হয়, গত বৃহস্পতিবার দুপুরে মন্ত্রণালয়ে যাওয়ার পথে তিনি নিখোঁজ হন। বনানী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বোরহান উদ্দিন বলেন, তার বাসা খিলক্ষেতে। সেখান থেকে বৃহস্পতিবার দুপুরে বনানীতে একজনের সঙ্গে দেখা করেন। এরপর মন্ত্রণালয় যাওয়ার কথা। কিন্তু দুপুরের পর থেকে তার ফোন নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়। আমরা নিখোঁজের বিষয়টি তদন্ত করছি। গতকাল পর্যন্ত তার কোনো হদিস পাওয়া যায়নি। ইনকিলাব

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত