প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ইউরোপিয় সাংস্কৃতিক রাজধানীর স্বীকৃতি পেল ভালেটা

লিহান লিমা: ২০১৮ সালে আনুষ্ঠানিকভাবে ইউরোপীয় সংস্কৃতির রাজধানী হিসেবে স্বীকৃতি পেল ভূমধ্যসাগরের দ্বীপরাষ্ট্র মাল্টার রাজধানী ভালেটা।

সাড়ে চার লাখ জনসংখ্যার দেশ মাল্টার প্রধানমন্ত্রী জোসেফ মাস্কাট বলেন, মাল্টা নতুন করে পর্যটকদের স্বাগত জানাতে প্রস্তুত। এর প্রেক্ষিতে বছরজুড়ে শহরটিতে ১৪০টি প্রকল্প ও ৪০০টি বৃহত্তর ইভেন্টের আয়োজন করার পরিকল্পনা করা হয়েছে।

সাড়ে চারশ বছর আগের ‘সেন্ট পিটার অ্যান্ড পল ব্যাস্টিয়ন দূর্গ’, প্রেসিডেন্টের কার্যালয় ‘দ্য গ্র্যান্ড মাস্টার্স প্যালেস’, ‘পিয়াৎসা রেজিনা’, শত বছরের নকশার ফল চার্চ ‘সেন্ট জনস কো-ক্যাথিড্রাল’, ‘সিটি গেট’, শহরের বাড়িগুলোর ‘রঙিন কাঠের ব্যালকনি’, পাথর যুগের প্রতœতত্ত্ব জাদুঘরের চার হাজার বছরের পুরনো ছবি ‘স্লিপিং লেডি’, শান্তির স্থান খ্যাত ‘আপার বারাক্কা গার্ডেনস’, ‘পোতাশ্রয়’, ‘রোমান্টিক সন্ধ্যা’ মাল্টার অন্যতম আকর্ষণ।

এছাড়া ইংরেজি, ইতালী, ফরাসি, জার্মান, রুশ ও স্প্যানিশ সংস্কৃতির দেখা মিলবে মাল্টাতে।

১৯৮০ সালে তিনশ’র বেশি ঐতিহাসিক স্থাপনা সমৃদ্ধ এই শহরের কেন্দ্রস্থলকে বিশ্ব ঐতিহ্যের অংশ ঘোষণা করে ইউনেস্কো। শহরটির স্থাপত্যরীতি অনেকটা বারোক ঘরানার, যাতে যুক্ত হয়েছে ম্যানারিস্ট, নিও-ক্লাসিকাল ও আধুনিক রীতি। শহরের অনেক জায়গাতেই দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের ধ্বংসযজ্ঞের চিহ্ন বিদ্যমান।

সৌন্দর্যের জন্য ইউরোপের বিভিন্ন রাজবংশ এই শহরকে ‘সুবারবিসিমা’ বা ‘সর্বাপেক্ষা গর্বিত’ ডাকনাম দিয়েছিলো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত