প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

মিয়ানমারের শরণার্থী ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের নেওয়ার বিষয়টি প্রতারণামূলক: আরসার বিবৃতি

রাশিদ রিয়াজ : আরাকান স্যালভ্যাশন আর্মি বা আরসা এক বিবৃতিতে বলেছে ঘর জমি ফেরত বা পুনর্বাসন না করে রোহিঙ্গাদের মিয়ানমারে শরণার্থী ক্যাম্পে নেওয়ার বিষয়টি প্রতারণা ছাড়া আর কিছুই নয়। এক বিবৃতিতে সংগঠনটি দাবি করছে, এর লক্ষ্য হচ্ছে সংখ্যালঘু রোহিঙ্গাদের দীর্ঘমেয়াদে আটকে রাখা যা ষড়যন্ত্রেরই অংশ কারণ তাদের পূর্বপুরুষদের জমি তাদের ফেরত দেওয়া হচ্ছে না।

গত অক্টোবর থেকে অন্তত সাড়ে ৭ লাখ রোহিঙ্গা মিয়ানমার থেকে বাংলাদেশে এসে আশ্রয় নেয়। তাদের আগামী দুই বছরের মধ্যে নিজদেশে ফিরিয়ে নেওয়ার জন্যে দুটি দেশ চুক্তি করেছে। তবে অধিকাংশ রোহিঙ্গা বলছে তারা হত্যা, ধর্ষণ, বাড়ি ঘরে লুটপাট ও অগ্নিসংযোগের পর বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে এবং নিজদেশে একই রকম পরিস্থিতিতে ফিরে যেতে চায় না। জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংগঠনগুলো বলছে, মিয়ানমারে এখনো রোহিঙ্গাদের ওপর অত্যাচার চলছে এবং নিরাপত্তা নিশ্চিত করে রোহিঙ্গাদের স্বেচ্ছায় ফিরে যাওয়ার মত পরিবেশ তৈরি জরুরি।

এদিকে টুইটারে এক বিবৃতিতে আরসা বলছে, তথাকথিত অস্থায়ী শরণার্থী ক্যাম্পে রোহিঙ্গাদের ফিরিয়ে নেওয়ার বিষয়টি প্রতারণা এবং তাদের জমি ফিরিয়ে দেওয়া ছাড়া ক্যাম্পে দীর্ঘদিন আটক করে রাখার ষড়যন্ত্র হচ্ছে। ২০১২ সাল থেকে রাখাইনের রাজধানী সিতুইয়ের শরণার্থী ক্যাম্পে হাজার হাজার রোহিঙ্গাকে আটকে রাখা হয়েছে। অন্যদিকে রোহিঙ্গাদের নিজস্ব জমি কেড়ে নিয়ে শিল্প ও কৃষি প্রকল্প বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এর লক্ষ্যই হচ্ছে রাখাইনে বৌদ্ধদের সংখ্যাগরীষ্ঠতা নিশ্চিত করা। ফলে রোহিঙ্গাদের কখনই তাদের ঘরবাড়িতে ফিরে যেতে দেওয়া হবে না। ইয়াহু নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত