প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চালের বাজারটি এই ব্যবসায়িরা নিয়ন্ত্রণ করে!

রাজেকুজ্জামান রতন : দেশের বাজারে চাল, পেয়াজ ও অন্যান্য নিত্যপণ্যের দাম দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। আমাদের দেশে কিছু নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস যেমন: চাল, ডাল, গম, পেয়াজ, কাচামরিচ সবকিছুর উৎপাদন এবং প্রয়োজন এর উপর বিবেচনা না করে কিছু সিন্ডিকেট ব্যবসায়ির ইচ্ছা অনুযায়ি এই নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধি করে থাকে। আমাদের অনেক নিত্যপণ্যের সরবরাহ করা থাকে, তারপরেও কোন নিত্যপণ্যের দাম কমানো হয় না। এছাড়া কোন নিত্যপণ্যের দাম একবার বৃদ্ধি করলে, সেই দ্রব্যের মূল্য বিভিন্ন অজুহাত দেখিয়ে আর কমানো হয় না।

যেমন: এখন আমন ধানের ভরা মৌসুম, বাংলাদেশের দ্বিতীয় মৌসুম হচ্ছে আমন ধান। বর্তমানে পর্যাপ্ত পরিমানে বাজারে আমন ধান রয়েছে । এছাড়া বিদেশ থেকে চাল আমদানি করা হয়েছে। তাহলে আমাদের চালের বাজারে চালের কোন ঘাটতি থাকার কথা নেই, কিন্তু আজ চালের বাজারে ঘাটতি রয়েছে। আমাদের বাংলাদেশে সবচেয়ে বড় চাতাল মালিক হচ্ছে ১৩ জন এবং ১৬ জন হচ্ছে চাল ব্যবসায়ি। আমাদের দেশের চালের বাজারটি এই ব্যবসায়িরা নিয়ন্ত্রন করে থাকে। এর মধ্যে কিছু ব্যবসায়ি আছে কুষ্টিয়া জেলার। তাদের লক্ষ লক্ষ টন ধান গুদামজাত করা আছে। আমাদের পেয়াজ এর চাহিদা অনুযায়ি প্রয়োজন হয় ২২ লক্ষ টন। সেখানে আমাদের দেশে পেয়াজ উৎপাদিত হয় ১৭-১৮ লক্ষ টন এবং বিদেশ থেকে আমদানি করা হয় ৭-৮ লক্ষ টন। তাহলে আমাদের দেশে পেয়াজের ঘাটতি হবার কথা নয়। তাহলে আজ কেন পিয়াজের দাম বেশি?

পরিচিতি: কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য, বাসদ
মতামত গ্রহণ: রাশিদুল ইসলাম মাহিন
সম্পাদনা: মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত