প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বাঁচা-মরার লড়াই শ্রীলঙ্কার সামনে জিম্বাবুয়ে

স্পোর্টস ডেস্ক : দুর্বল ব্যাটিং আর নির্বিষ বোলিং, সঙ্গে বাজে ফিল্ডিং— গত বছরের সমস্যা থেকে বের হতে পারছে না শ্রীলঙ্কা। পরিণতিতে বরণ করতে হচ্ছে যাচ্ছেতাই হার। ত্রিদেশীয় সিরিজে এখনও জয়ের মুখ দেখেনি তারা, জিম্বাবুয়ের কাছে হারের পর উড়ে গেছে বাংলাদেশের সঙ্গে। ফাইনালের আশা বাঁচিয়ে রাখতে রবিবার জিম্বাবুয়েকে হারাতেই হবে লঙ্কানদের।

মিরপুর শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে চন্ডিকা হাথুরুসিংহে আর হিথ স্ট্রিকের শিষ্যদের লড়াই শুরু হবে বেলা ১২টায়। ম্যাচটি সরাসরি সম্প্রচার করবে গাজী টিভি।

লিগ পর্বে তিন দলই দুটি করে ম্যাচ খেলেছে। বাংলাদেশ দুই ম্যাচেই বোনাস পয়েন্ট সহ জিতে হেসেখেলে নিশ্চিত করেছে ফাইনাল। শিরোপা লড়াইয়ে মাশরাফির দলের প্রতিপক্ষ কে হবে তা নির্ভর করছে জিম্বাবুয়ে-শ্রীলঙ্কার ম্যাচের ওপরে। ৪ পয়েন্ট সংগ্রহ করা জিম্বাবুইয়ানরা জিতলে চূড়ান্ত করবে ফাইনালের টিকিট।

তবে তাদের অপেক্ষায় রাখতে হলে শ্রীলঙ্কাকে জিততেই হবে এবং সেটা বড় ব্যবধানে। এরপর লঙ্কানরা তাকিয়ে থাকবে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ম্যাচের দিকে, আর সেই ম্যাচে অবশ্যই তাদের সমর্থন থাকবে স্বাগতিকদের পক্ষে। জিম্বাবুয়েকে বাংলাদেশ হারালে শ্রীলঙ্কার ভরসা শেষ ম্যাচ। ২৫ জানুয়ারি লিগ পর্বের শেষ ম্যাচে স্বাগতিকদের কাছে হেরে গেলেও রানরেটের হিসেবে ফাইনালে উঠতে পারে হাথুরুসিংহের দল। আপাতত রানরেটে বেশ ফারাক জিম্বাবুয়ের (-১.১২০) সঙ্গে শ্রীলঙ্কার (-১.৭৫০)। এত জটিল হিসেবের মধ্যে পড়তে না চাইলে শ্রীলঙ্কার সামনে একটাই পথ খোলা—বাকি দুই ম্যাচেই জয়!

শ্রীলঙ্কানদের আত্মবিশ্বাসে এরই মধ্যে চিড় ধরিয়ে দিয়েছে জিম্বাবুয়ে। গত জুন-জুলাইয়ে শ্রীলঙ্কার মাটিতে প্রথমবারের মতো ওয়ানডে সিরিজ জিতেছিল আফ্রিকার দেশটি। মিরপুরে ত্রিদেশীয় সিরিজেও তারা ১২ রানে হারিয়ে দিয়েছে ১৯৯৬ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়নদের। আবার শ্রীলঙ্কার মুখোমুখি হওয়ার আগে তাই জিম্বাবুয়ে দারুণ আত্মবিশ্বাসী। যদিও দলটির অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান ক্রেইগ আরভিনের ধারণা, শক্ত প্রতিরোধের সামনে পড়তে হবে তাদের, ‘প্রতিটা ম্যাচই আলাদা। টানা দুই ম্যাচ হারলেও শ্রীলঙ্কা ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা করবে। আমাদের তাই সব বিভাগে ভালো খেলেই জিততে হবে। আগের ম্যাচে তাদের হারালেও এবার বেশ কঠিন পরীক্ষার সামনে পড়তে হবে আমাদের।’

জিম্বাবুয়ের কাছে হারের পর বাংলাদেশের বিপক্ষে ১৬৩ রানে বিধ্বস্ত হয়েছে শ্রীলঙ্কা। তবে রবিবার জ্বলে ওঠার প্রত্যাশা অলরাউন্ডার থিসারা পেরেরার কণ্ঠে, ‘আমাদের মাথা উঁচু রাখতে হবে, আমাদের খাটো করে দেখার সুযোগ নেই। কেউ বলতে পারে না আমরা কখন জেগে উঠবো।’

‘জেগে উঠতে’ পারলে শ্রীলঙ্কার জন্যই ভালো। নইলে ২৫ জানুয়ারি বাংলাদেশের বিপক্ষে লিগ পর্বের শেষ ম্যাচ শুধু আনুষ্ঠানিকতা হয়ে দাঁড়াবে হাথুরুসিংহের শিষ্যদের জন্য!

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত