প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘ভরাডুবির চিন্তা করেই এই পথ অবলম্বন’ 

খন্দকার আলমগীর হোসাইন : স্থানীয় সরকার নির্বাচনের জন্য স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের কাছ থেকে নির্দেশ দেওয়া হয়। এই নির্দেশ ছাড়া নির্বাচন কমিশনের সিডিউল ঘোষণা করা যায় না। এখন নির্বাচন কমিশন শিডিউল ঘোষণা করেছে, সীমানা নির্ধারণ না করে-ই। এতেই বুঝা যাচ্ছে, সরকার ও ইসি মিলে একটা নাটক মঞ্চস্থ করলো। সরকার আর নির্বাচন কমিশন সমঝোতা করেই এই নাটকটা করেছে। সরকার তাদের ভরাডুবির কথা চিন্তা করেই এই পথ অবলম্বন করেছে। নির্বাচন কমিশন এই সুযোগটা সরকারকে করে দিয়েছে।

ঢাকা সিটি উত্তরের স্থগিত হওয়া নির্বাচন বিষয়ে আলাপকালে বিএনপির স্থায়ী কমিটির অন্যতম সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন এই সব কথা বলে। বিএনপির সিনিয়র এই নেতা আরও বলেন, এটাতে যে ত্রুটি ছিল এবং এটা নিয়ে পত্রিকায় লেখালেখিও হয়েছে। এই যে নির্বাচন কমিশন ত্রুটিপূর্ণ ব্যবস্থা রেখে শিডিউল ঘোষণা করেছে, এখানেই মনে হয় এটা একটা খেলা। সরকার দেখালো, আমরা নির্বাচন করতে চেয়েছি। নির্বাচন কমিশন জেনেশুনেই এই ত্রুটিপূর্ণ সিডিউল দিয়েছে আর হাইকোর্ট রুল দিয়েছে। ত্রুটিপূর্ণ যে কোনো জিনিসে যে কেউ গেলেই হাইকোর্টের এই ধরনের রুল দিয়ে থাকে।

তিনি বলেন, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় যদি বলে তাদের কাছে সহযোগিতা চায়নি কিন্তু নির্দেশ গেছে তাদের কাছ থেকেই। নির্বাচন কমিশন স্থানীয় সরকারকে বলতে পারতো, নির্বাচন করার জন্য সীমানা নির্ধারণ এখনো পূর্ণাঙ্গ করেনি। কাজটা ত্রুটিপূর্ণ আছে, এখন শিডিউল ঘোষণা ঠিক হবে না। নির্বাচন কমিশন এটা ত্রুটিপূর্ণ জেনেই, সীমানা বিষয়টি চূড়ান্ত হওয়ার আগেই শিডিউল ঘোষণা করা, এটা হলো সরকারের লোক দেখানো বিষয়। এই নাটক সাজিয়ে জনগণকে বুঝাতে চেয়েছে, তারা নির্বাচন করতে চায় কিন্তু হাইকোর্ট স্থগিত করে দিয়েছে। অর্থাৎ সম্পূর্নটাই লোক দেখানো, বলবে নির্বাচন দিতে চেয়েছিলাম কিন্তু হাইকোর্ট বন্ধ করে দিয়েছে। সরকার ও নির্বাচন কমিশনের যোগশাজসে এটা খেলা হলো আর কি। সুন্দর একটা নাটক মঞ্চস্থ হলো। হাইকোর্টের ঘাড়ে রেখে তাদের পরিকল্পনা সফল করলো।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত