প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফিলিস্তিন সফরে যাচ্ছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

আশিস গুপ্ত, নয়াদিল্লি : আগামী মাসের ১০ ফেব্রুয়ারি ফিলিস্তিন সফরে যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। চলতি মাসের ১৪ জানুয়ারি সস্ত্রীক ভারত সফরে আসেন ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। প্রটোকল ভেঙেই দিল্লি বিমানবন্দরে তাঁকে স্বাগত জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

অন্যদিকে গত বছর ভারতের প্রথম প্রধানমন্ত্রী হিসাবে ইসরায়েল সফরে গিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী। ইসরায়েলের সঙ্গে বর্তমান ভারত সরকারের এই ঘনিষ্টতা মেনে নিতে পারেনি কংগ্রেসসহ বিরোধী দলগুলো। প্রতিবাদে সোচ্চার হয়েছেন তাঁরা। সম্ভবত সেই প্রতিবাদকে প্রতিহত করতেই এবার একইভাবে ভারতের তরফে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দেওয়া হবে ফিলিস্তিনিদের দিকেও। আর সে উপলক্ষ্যে আগামী ১০ ফেব্রুয়ারি ফিলিস্তিনের প্রধান শহর রামাল্লা পৌঁছাবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী।

এখনও প্রধানমন্ত্রীর ফিলিস্তিনের সফর নিয়ে কোনো নির্দিষ্ট সূচি ঘোষণা করা না হলেও, সরকারি সূত্রের খবর অনুযায়ী জর্ডানের আম্মান থেকে হেলিকপ্টারে রামাল্লা যাবেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী। জেরুজালেম থেকে রামাল্লার দূরত্ব মাত্র ৮কিমি। তবে নরেন্দ্র মোদী যে পথে যাবেন, তাতে খুবই কৌশলগতভাবে তিনি ইসরায়েলকে এড়িয়ে ফিলিস্তিন যাবেন। ঠিক যেমন তিনি গত বছর ইসরায়েল সফরের সময়ে করেছিলেন।

গত বছর ফিলিস্থিনে না যাওয়ার পর কথা উঠেছিলো যে, ভারত শুধুমাত্র ইসরায়েলের সঙ্গে সু-সম্পর্ক রাখতে চায়। ‘ফিলিস্তিন সেন্টার ফর পলিসি এন্ড সার্ভে রিসার্চ-এর ডিরেক্টর খালিল শিকাকি এর নিন্দা করে বলেছিলেন, ভারতের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী বোধহয় পশ্চিমের সঙ্গেই সম্পর্ক স্থাপনে বেশি উৎসাহী। এখনতো মনে হচ্ছে ভারতের থেকে কোনো রকম সাহায্য পাওয়ার আশা নেই ফিলিস্তিনের।’

স্বাভাবিকভাবেই এই সফর ভারতের জন্য অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বলেই মনে করছেন আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশ্লেষকরা। ২০১৪ সালে ক্ষমতায় আসার পর ফিলিস্তিনিদের প্রতি নরেন্দ্র মোদী সরকারের মনোভাবে যে কোনো পরিবর্তন আসেনি, এই সফর তা প্রমাণ করার জন্যই বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ