প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিশ্বে প্রবৃদ্ধি ঘটবে ৩ ভাগ

মোস্তফা আরিফ : বিশ্ব ব্যাংক আশা করছে, দীর্ঘ এক দশক জুড়ে অর্থনৈতিক মন্দা ভাব কেটে যাবে, চলতি বছর প্রবৃদ্ধি দ্রুত গতিতে ঘটবে, অর্থনীতিতে আশার আলো দেখা যাচ্ছে বৈকি, বিশ্বজুড়ে অর্থনীতিতে স্থিতিশীলতা বিরাজ করবে। বিশ্ব ব্যাংক এমনটিই প্রত্যাশা করছে। অর্থনৈতিক গতি ধীর গতিতে প্রবাহিত হলেও বিশ্ব ব্যাংক আশা করছে চলতি বছর বিশ্ব জুড়ে প্রবৃদ্ধি ঘটবে শতকরা ৩ দশমিক ১০ ভাগ। মন্দা পরবর্তী এই প্রথম বিশ্ব জুড়ে অর্থনীতিতে ইতিবাচক প্রভাব পড়তে যাচ্ছে। সারা বিশ্ব জুড়ে প্রবৃদ্ধি ঘটবে।

বিশ্ব ব্যাংকের এই ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি স্বল্প মেয়াদী হতে পারে, দীর্ঘ মেয়াদী সাফল্য পেতে হলে জীবন যাত্রার মান উন্নত করতে হবে এবং দারিদ্র্য বিমোচনে জোড় দিতে হবে। বিশেষ করে উন্নয়নশীল বিশ্বে দারিদ্র্য বিমোচন না ঘটাতে পারলে অর্থনৈতিক সাফল্য লাভ করা যাবে না। নিকটবর্তী ভবিষ্যতে উন্নয়নশীল বিশ্বে দ্রুত অর্থনৈতিক প্রসার ঘটবে কিন্তু একথা নিশ্চিত করে বলা যায় না।
বিশ্ব ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট জিম ইয়ং কিম বলেন,“বিশ্বব্যাপী যে সংকট তা অনেকটাই হ্রাস পেয়েছে, প্রবৃদ্ধি আশা ব্যাঞ্জক হবে এটা আশা করা যাচ্ছে।” বিশ্বেরঅর্থনীতি নিয়ন্ত্রক সংস্থা গত জুনে যে আশা করেছিল তার থেকেও অধিকমাত্রায় প্রবৃদ্ধি ঘটবে।

দীর্ঘ মেয়াদী প্রবৃদ্ধি: উন্নয়নশীল এবং উদীয়মান বিশ্বের বাজার ব্যবস্থা এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধি বিগত অর্থ বছরের তুলনায় কিছুটা হলেও ধীর গতিতে ঘটবে। কিন্তু দীর্ঘ মেয়াদী কোন সাফল্য আসবে কিনা এ নিয়ে বিশ্ব ব্যাংক চিন্তিত। বর্তমান সময়ে বিশ্ব অর্থনিিততে যথোপযুক্ত প্রবৃদ্ধি ঘটা সত্বেও দীর্ঘ মেয়াদী প্রক্রিয়ায় তা অব্যাহত থাকবে কিনা সেটা নিশ্চিত নয় ব্যাংক। তারা মনে করে উৎপাদন খাতে প্রবৃদ্ধি স্বাভাবিক অবস্থার থেকেও ধীর গতিতে ঘটবে। উৎপাদন খাতে ব্যাপক উন্নতির ফলে– শ্রমিকশ্রেণী প্রতি ঘন্টায় অতিরিক্ত উৎপাদন প্রক্রিয়ার সাথে জড়িত থাকার ফলে পর্যাপ্ত চাহিদার তুলনায় উৎপাদন ছাড়িযে যাবে কিন্তু মূল সমস্যা হচ্ছে বিনিয়োগে স্থবিরতা বিরাজ করতে পারে। সেক্ষেত্রে উৎপাদন গতি স্লথ হতে পারে।
দীর্ঘ সময় জুড়ে যদি উৎপাদন গতি স্লথ হয়ে পড়ে তাহলে দেশে দেশে এর কুপ্রভাব পড়তে বাধ্য এবং বিশ্বের দুই তৃতীয়াংশে অর্থনৈতিক কর্মকান্ড স্থবির হয়ে পড়বে।

এর ফলে আবারও কর্মসংস্থানে সংকট সৃষ্টি হতে পারে, নতুন করে মন্দার কবলে পড়বে বিশ্ব। এমন শঙ্কা প্রকাশ করেছে বিশ্ব ব্যাংক।প্রবৃদ্ধি কতটা ঘটতে পারে তা নির্ভর করছে ব্যাংক সুদের হার কতটা হবে, চাহিদা ও যোগানের মধ্যে সমন্বয় থাকতে হবে, বিনিয়োগ বৃদ্ধি করতে হলে অবশ্যই ব্যাংক সুদের হার হ্রাস করতে হবে, ব্যবস্য়াীদেরকে অবশ্যই কর অবকাশ থাকতে হবে। সরকারী ব্যয় বা অপচয় কমাতে হবে।
শিক্ষা, স্বাস্থ্য এবং সেবাখাতে যেমন– সড়ক ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটাতে পারলে প্রবৃদ্ধি ঘটবে, একইসাথে টেলিকম্যুনিকেশন, বৈদ্যুতিক চাহিদা ও যোগানের মধ্যে সমন্বয় ঘটাতে পারলে প্রবৃদ্ধি হতে পারে। প্রত্যাশিত প্রবৃদ্ধি ঘটবে যদি জাতিগোষ্ঠী সুশিক্ষিত এবং কর্মদক্ষ হয়ে উঠতে পারে সেই সাথে ব্যবসা বাণিজ্যের ক্ষেত্রে ভৌত অবকাঠামোর সুযোগ সুবিধা পায়।

লেখক : সিনিয়র সাংবাদিক ও উন্নয়নকর্মী
সম্পাদনা : খন্দকার আলমগীর হোসাইন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত