প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বরিশালে যুব-ছাত্র লীগের সংঘর্ষ, আহত ১০

খোকন আহম্মেদ হীরা, বরিশাল: নদী থেকে বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে বুধবার সকালে জেলার গৌরনদী উপজেলার বড়দুলালী গ্রামে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের মধ্যে ঘণ্টাব্যাপী হামলা, পাল্টাহামলা ও সংঘর্ষে মহিলাসহ উভয়পক্ষের ১০ জন আহত হয়েছে।

এ সময় একটি বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। খবর পেয়ে থানার ওসি একদল পুলিশ নিয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনেন। ঘটনাস্থল থেকে অবিস্ফোরিত একটি বোমা সদৃশ্য বস্তু উদ্ধার করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, সরকারী গৌরনদী কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রাসেল হাওলাদার উপজেলার বড়দুলালী গ্রামের পার্শ্ববর্তী পালরদী নদীতে ড্রেজার বসিয়ে বালুর ব্যবসা করে আসছিলো। ভরাট কাজকে কেন্দ্র করে স্থানীয় যুবলীগ নেতা সোহরাব বেপারী, সরকারী গৌরনদী কলেজ ছাত্রলীগের সাবেক সহসভাপতি মামুন প্যাদাসহ তাদের সহযোগীদের সাথে উভয়ের মধ্যে বাগবিতন্ডা হয়।

এর জেরধরে বুধবার সকালে উভয়গ্রুপের সমর্থকদের মধ্যে ঘন্টাব্যাপী হামলা-পাল্টা হামলা, ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া, ইট-পাটকেল নিক্ষেপ ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বালু উত্তোলণ মেশিনের ১৫টি পাইপ কেটে ফেলা হয়।

হামলা ও সংঘর্ষে যুবলীগ নেতা সোহরাব বেপারী, মামুন প্যাদা, প্রবাসী সোহাগ বেপারী, লিটন হাওলাদার, সাইদুল বেপারী, ফিরোজ সরদার, ছাত্রলীগ নেতা রাসেল হাওলাদার, তার মা হাসিনা বেগম, সমর্থক খলিল খন্দকার, আরিফ হোসেনসহ উভয় পক্ষের ১০ জন আহত হয়।

গুরুতর আহত দুবাই প্রবাসী সোহাগ বেপারীকে শেবাচিম ও সোহরাব বেপারীকে গৌরনদী উপজেলা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সরকারী গৌরনদী কলেজ ছাত্রলীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক রাসেল হাওলাদার অভিযোগ করেন, যুবলীগ নেতা মামুন প্যাদা তার সহযোগী সোহরাব বেপারীকে নিয়ে ৫০ হাজার টাকা চাঁদা দাবি করেন। চাঁদা দিতে অস্বীকার করলে তারা আমার ওপর হামলা চালায়।

চাঁদা দাবির অভিযোগ অস্বীকার করে যুবলীগ নেতা সোহরাব বেপারী বলেন, আমি ও রাসেল যৌথভাবে বালু ভরাটের ব্যবসার কাজ শুরু করি। ব্যবসার অংশ দাবি করলে বাগবিতন্ডার একপর্যায়ে রাসেল ও তার সহযোগীরা ধারালো অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে আমাদের ওপর হামলা চালায়। সম্পাদনা: উমর ফারুক রকি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত