প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

এসএসসি পরীক্ষার উত্তরপত্র মূল্যায়নে আমতলীর নয় শিক্ষককে অব্যহতি

মোঃ জয়নুল আবেদীন, আমতলী (বরগুনা): বরগুনার আমতলী উপজেলার নয় জন শিক্ষক আসন্ন এসএসসি পরীক্ষার উত্তরপত্র পরীক্ষক হিসেবে মূল্যায়ন করতে পারবেন না। বিগত বছরে উত্তরপত্র মূল্যায়নে অবহেলার অভিযোগ প্রমানিত হওয়ায় এ নয় শিক্ষককে অব্যহতির আদেশ দিয়েছেন বরিশাল মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক প্রফেসর মোঃ আনোয়ারুল কবির।

জানাগেছে, ২০১৭ সালের এসএসসি পরীক্ষার উত্তরপত্র মূল্যায়নে আমতলী উপজেলার নয় জন শিক্ষক পরীক্ষক হিসেবে বিভিন্ন ধরনের ভূলক্রটি করেছেন। এ ভূলক্রটিগুলো প্রধান পরীক্ষকের চোখে ধরা পড়ায় তারা (প্রধান পরীক্ষক) বরিশাল মাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রকের কাছে এ সকল পরীক্ষকদের কালো তালিকা করে ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য প্রতিবেদন দাখিল করেন।

শিক্ষা বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এ প্রতিবেদন পেয়ে ভূলক্রটির ধরন অনুসারে কালো তালিকা করে চিলা হাসেম বিশ্বাস মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মোয়াজ্জেম হোসেন, সহকারী শিক্ষক আজাহার উজ্জল, আমতলী একে পাইলট মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক মোঃ বজলুর রহমান,কুকুয়া আদর্শ মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক সুনীল চন্দ্র শীল,খলিলুর রহমান, ঘটখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক আবদুস সোবাহান ও চুনাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মোঃ গোলাম মোস্তফাকে এক বছর এবং চুনাখালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সিনিয়র সহকারী শিক্ষক মোঃ আবু জাফর ও কাউনিয়া ইব্রাহিম একাডেমির সহকারী শিক্ষক মোঃ সেলিম মাহমুদকে দু’বছরের জন্য পরীক্ষক থেকে অব্যহতি দিয়েছেন।

এ সকল পরীক্ষকগণ ২০১৮ সালে ফেব্রুয়ারী মাসে অনুষ্ঠিত এসএসসি পরীক্ষার উত্তরপত্র মূল্যায়ন করতে পারবে না।

আমতলী একে পাইলট সরকারী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক (ভারপ্রাপ্ত) মোঃ বজলুর রহমান বুধবার দুপুরে মুঠোফোনে বলেন, কোন কারণ ছাড়াই আমাকে অন্যায় ভাবে পরীক্ষক (গনিত) হিসেবে অব্যহতি দিয়েছে।

আমতলী মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ আকমল হোসেন খাঁন বলেন, এ বিষয়ে আমি অবগত নই। সম্পাদনা: উমর ফারুক রকি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত