প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জঙ্গিবাদে জড়িতদের স্বাভাবিক জীবনে পুনর্বাসনে সাড়া নেই

হ্যাপী আক্তার : জঙ্গিবাদী কর্মকাণ্ডে জড়িতদের স্বাভাবিক জীবনে পুনর্বাসনে সরকারের ঘোষণায় সাড়া মিলছে না। কারণ এক বছর আগে স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী এমন ঘোষণা দিলেও এক বছরে পুনর্বাসিত হয়েছেন মাত্র সাত জন। তবে নিরাপত্তা বিশ্লেষকরা মনে করেন জঙ্গিরা এমন ঘোষণায় খুব বেশি উদ্ধুদ্ধ হবে না। আদর্শিক পরিবর্তনেই গুরুত্ব দিয়েছেন তারা।

আইজিপি এ কে এম শহীদুল হক বলেন, গত বছর স্বাধীনতা দিবসের বক্তব্যে জঙ্গীদের পুনর্বাসনের ঘোষণা দিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। জাতীয় সংসদেও একই কথা বলেছিলেন তিনি। এরপরই প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্তা-ব্যক্তিরা জঙ্গীদের পুনর্বাসন প্রক্রিয়া নিয়ে কথা বলতে শুরু করেন বলে জানিয়েছেন

নিরাপত্তা বিশ্লেষক এয়ার কমোডর (অবঃ) ইশফাক ইলাহী চৌধুরী বলেছেন, জঙ্গিদের বিচারের মাধ্যমে তাদের শাস্তি দেওয়া হচ্ছে। তবে, অপরাধীরা তাদের পরিবার ফিরে গেলে সেখানে তাকে গ্রহণ না করায় সে আবার জঙ্গি তৎপরতায় জড়িয়ে পড়তে পারে। তাই সামাজিক ভাবে পরিবর্তনের গুরুত্ব দিতে হবে।

র‌্যাবের লিগ্যাল এন্ড মিডিয়া উইং পরিচালক মুফতি মাহমুদ খান বলেন, যারা জঙ্গি ছিলো তার জেল থেকে ছাড়া পেয়ে পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় তারা সাধারণ জীবনের ফিরে এসেছেন। সরকার থেকে আর্থিক অনুদানে তার স্বাবলম্বী হওয়ার চেষ্টা করছে। বেশ কয়েকটি ঘটনায় র‌্যাবের দাবি পুনর্বাসন প্রক্রিয়ায় নজর রাখছে তারা

সরকারের নীতিগত সিদ্ধান্তের পর পুনর্বাসনের জন্য জঙ্গীবাদের পথ ছেড়েছেন সাতজন। যার মধ্যে রংপুরে জেএমবির’র তিনজন, বগুড়াতে জেএমবি’র দুইজন, কুষ্টিয়ায় জেএমবি’র একজন এবং হরকাকতুল জিহাদের একজন। এদের প্রত্যেককেই দেয়া হয়েছে পাঁচ লাখ করে টাকা।

নিষিদ্ধঘোষিত সংগঠন জেএমবির সদস্য ছিলেন আব্দুল হাকিম। তিনি বলেন, বর্তমানে আমি সাধারণ মানুষের জীবনে আসতে পেরে আনন্দ প্রকাশ করেন। জঙ্গিবাদের পথ ছেড়ে বগুড়ার শাহজাহানপুরে তিনি এখন নার্সারীর ব্যবসা করছেন তিনি । জঙ্গীবাদ থেকে ফিরে আসা হাকিমের আহবান, প্রচলিত সমাজব্যবস্থা থেকে তাদের যেন দূরে ঠেলে দেয়া না হয়। সূত্র : ডিবিসি নিউজ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত