প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রথম ধাপে মিয়ানমার যাবে ৫শ’ হিন্দু ও ৫শ’ মুসলিম রোহিঙ্গা

জুয়াইরিয়া ফৌজিয়া: ঢাকা নেপিডো ফিজিক্যাল অ্যারেঞ্জমেন্ট চুক্তি অনুযায়ী আগামী মঙ্গলবার থেকে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন শুরু করতে চায় মিয়ানমার। প্রথম ধাপে ৫শ’ হিন্দু এবং ৫শ’ মুসলমান নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানান মিয়ানমারের প্রেসিডেন্টের মুখপাত্র জ্য তে। আর প্রতিদিন গড়ে ৩শ’ রোহিঙ্গা ফিরবে মিয়ানমারে। আগামী সপ্তাহ থেকে প্রথম ধাপের প্রত্যাবাসন কার্যক্রম শুরুর পরিকল্পনা রয়েছে সুচি সরকারের।

চুক্তির বিষয়টি ইতিবাচক হিসেবে দেখলেও কক্সবাজারে কুতুপালং শরণার্থী শিবিরে থাকা রোহিঙ্গারা মিয়ানমারের নাগরিকত্বের নিশ্চয়তা চায়। তবে বার্মিজ সেনাবাহিনীর আচরণ নিয়েও শঙ্কায় আছেন তারা।

রোহিঙ্গারা বলেন, এখানে যেভাবে আন্তর্জাতিক সব সংস্থাগুলি আমাদেরকে সাহায্য করছে, আমাদের অধিকার আদায়ে লড়াই করছে। ঠিক সেভাবে মিয়ানমারেও যদি তারা আমাদের পাশে থাকে তাহলে আমরা ফিরতে চাই। আর মিয়ানমার সরকার যদি আমাদেরকে পরিচয়পত্র দেয় এবং আমাদের ঘরবাড়ি নির্মাণ করে দেয়, তাহলেই ফিরে যাব। আমরা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে কৃতজ্ঞ। তিনি আমাদের আশ্রয় দিয়েছেন। তবে সত্যি বলতে নদীতে ভেসে যেতে রাজি কিন্তু মিয়ানমারে ফিরতে রাজি নই আমরা।

তবে ক্যাম্পে থাকা ১শ’ হিন্দু রোহিঙ্গার বেশিরভাগই ফিরতে চায় মিয়ানমারে।

হিন্দু রোহিঙ্গারা বলেন, আমরা দেশে ফিরতে রাজি। যদি আরসার নির্যাতন বন্ধ হয় এবং মিয়ানমার সরকার আমাদের নিরাপত্তার নিশ্চয়তা দেয়।

নেপিডোতে বাংলাদেশ ও মিয়ানমারের চুক্তি অনুযায়ী ২ বছরের মধ্যে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনের পুরো প্রক্রিয়া শেষ হবে।

সূত্র: চ্যানেল টোয়েন্টিফোর

সর্বাধিক পঠিত