প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারত-ইসরায়েল সম্পর্কের সাতকাহন

লিহান লিমা: রোববার ছয়দিনের সফরে ভারত এসেছেন ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু। সফরে দুই নেতা ৯টি চুক্তি স্বাক্ষর করেছেন, একে অপরকে প্রশংসায় ভাসিয়েছেন এবং বন্ধুর জন্য প্রটোকল ভেঙ্গেছেন। আপাতদৃষ্টিতে সম্প্রতি ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ইসরায়েল ঘেঁষা নীতি চোখে পড়লেও ভারত ইসরায়েল সম্পর্ক নতুন নয়।
১৯৪৮ সালে ইসরায়েল রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার মাত্র ২ বছর পর ১৯৫০ সালে ভারত ইসরায়েলকে স্বীকৃতি দেয়। ১৯৫৬ সালে ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোশি শেরেট ভারত সফর করেন। ১৯৬২ সালে চীনের সঙ্গে যুদ্ধে ভারত ইসরায়েলের কাছ থেকে অস্ত্র নেয়। ১৯৭১ সালে ভারত-পাকিস্তান সীমান্ত যুদ্ধে ভারতকে অস্ত্র সহায়তা করে ইসরায়েল।
১৯৭৭ সালে ইসরায়েলের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোশি দায়েন ভারত সফর করেন। ১৯৮৫ সালে রাজিব গান্ধী ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী সাইমন প্রেসের সঙ্গে দেখা করেন, যা দুই দেশের উচ্চ পর্যায়ের নেতার প্রথম সাক্ষাত। ১৯৯২ সালে ভারত ও ইসরায়েলের একে অপরের দেশে দূতাবাস খোলে ও আনুষ্ঠানিক কূটনৈতিক সম্পর্ক শুরু হয়। ১৯৯৬ সালে ইজার ওয়াইজমেন প্রথম ইসরায়েলি প্রেসিডেন্ট হিসেবে ভারত সফর করেন। ১৯৯৯ সালে ইসরায়েল কারগিল যুদ্ধে ভারতকে অস্ত্র সহায়তা করে। ২০০৩ সালে প্রথম ভারতীয় পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে জসওয়ান্ত শিং ইসরায়েল সফর করেন।
এরপর দুই দেশের সম্পর্ক নতুন মাত্রা পায়। ২০১৪ সালে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের বৈঠকের ফাঁকে নেতানিয়াহুর সঙ্গে দেখা করেন। ২০১৫ সালে প্রণব মুখার্জী প্রথম ভারতীয় প্রেসিডেন্ট হিসেবে ইসরায়েল সফর করেন। ২০১৬ সালে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ ইসরায়েল সফর করেন। ২০১৭ সালে নরেন্দ্র মোদি প্রথম ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী হিসেবে ইসরায়েল সফরে যান এবং ভারত-ইসরায়েল প্রথমবারের মত ব্লু ফ্ল্যাগ মিলিটরি ড্রিলে অংশ নেয়। ২০১৮ সালে বেনইয়ামিন নেতানিয়াহু দ্বিপক্ষীয় সম্পর্কের রজতজয়ন্তি উপলক্ষ্যে ভারত আসেন। হিন্দুস্তান টাইমস।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত