প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বিএনপির মনোনয়ন বোর্ডের সিদ্ধান্ত
ডিএনসিসিতে মেয়র পদে ২০ দলীয় জোটের প্রার্থী তাবিথ আউয়াল

মাঈন উদ্দিন আরিফ: ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের উপ-নির্বাচনে মেয়র পদে ‘ধানের শীষ’ প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে তাবিথ আউয়ালকেই ঘোষণা করেছে বিএনপি।
২০১৫ সালের ২৮ এপ্রিলের নির্বাচনেও তিনিই দলের প্রার্থী ছিলেন। এতে আওয়ামী লীগের সমর্থনপুষ্ট প্রার্থী আনিসুল হক মেয়র নির্বাচিত হয়েছিলেন।
সোমবার রাতে গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে ৫ প্রার্থীর সাক্ষাতকার গ্রহণের পর দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর মনোনয়ন বোর্ডের এই সিদ্ধান্তের কথা ঘোষণা করেন।
তিনি বলেন, ঢাকা সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে ২০১৮ সালের নির্বাচনে বিএনপির পক্ষ থেকে মনোনয়ন দেয়ার জন্য সর্বসম্মতিক্রমের সিদ্ধান্ত হয়েছে তাবিথ আউয়ালকে।
তাবিথ মনোনয়ন কোনো বিবেচনায় করলেন প্রশ্ন করা হলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আমরা তাবিথকে মনে করেছি যে, হি ইজ দ্যা বেস্ট ক্যান্ডিডেট, সবচেয়ে ভালো ক্যান্ডিডেট। ফিটেস্ট ক্যান্ডিডেট। গতবার ভোট করেছিলো, প্রচুর ভোট পেয়েছে।

সে ইয়াং। সে বাইরে ছিলো, লেখা-পড়া করেছে, প্রচুর অভিজ্ঞতা হয়েছে। আমাদের স্থায়ী কমিটি হচ্ছে পার্লামেন্টারি বোর্ড। সেখান আলোচনা হওয়ার পরে অন্যান্যরা যোগ্য প্রার্থী ছিলো। তার মধ্যে তাবিথকে মনে হয়েছে এই নির্বাচনে জয়লাভ করার জন্য সবচেয়ে যোগ্য ক্যান্ডিডেট।

তিনি বলেন, আন্দোলনের অংশ হিসেবেই আমরা উত্তর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করছি। ইটস এ্ স্ট্রাগল ডেমোক্রেসি ফর আস।

রাত পৌনে ১০টায় দলের চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সভাপতিত্বে মনোনয়ন বোর্ড ৫ প্রার্থী যথাক্রমে দলের বিশেষ সম্পাদক ড. আসাদুজ্জামান রিপন, সহ প্রকাশনা বিষয়ক সম্পাদক শাকিল ওয়াহেদ, নির্বাহী কমিটির সদস্য তাবিথ আউয়াল ও সাবেক সাংসদ অবসরপ্রাপ্ত মেজর (অব.) আখতারুজ্জামান (রঞ্জন) এর সাক্ষাতকার নেন।

প্রথম প্রার্থী শাকিল ওয়াহেদ নিয়ে সাক্ষাতকার দেন এবং পৌনে ১১টায় শেষ হয় তাবিথ আউয়ালের সাক্ষাতকারের মধ্য দিয়ে। মেয়র পদে প্রার্থী ইচ্ছুক ঢাকা উত্তরের সভাপতি এম এ কাইয়ুম বিদেশে থাকায় মনোনয়ন বোর্ডে অনুপস্থিত ছিলেন।

মনোনয়ন বোর্ডে ছিলেন, স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমির উদ্দিন সরকার, সাবেক সেনা প্রধান মাহবুবুর রহমান, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান, মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী এবং এলাকা উত্তর বিএনপির সিনিয়র সহসভাপতি মুন্সি বজলুল বাসিত আনজু ও সাধারণ সম্পাদক আহসানউল্লাহ হাসান।
মনোনয়ন বোর্ডের সাক্ষাৎকার শেষে রাত ১০টা ৫৫ মিনিটে বোর্ডের দুই সদস্য কক্ষ বেরিয়ে আসার পর স্থায়ী কমিটির বৈঠকে অনুষ্ঠিত হয়। সেখানে উত্তর সিটি নির্বাচনের মেয়র পদে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হয়। সম্পাদনা : শাহানুজ্জামান টিটু

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত