প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঢাবিতে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর ছাত্রলীগের হামলা (ভিডিও)

ডেস্ক রিপোর্ট: সাত সরকারি কলেজের অধিভুক্ততা বাতিলের দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের উপর প্রশাসনের সহায়তায় হামলা চালিয়েছে ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা। এসময় নারী শিক্ষার্থীরা বিভিন্নভাবে হেনস্তার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।

সোমবার বিকেল সাড়ে ৩টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

এর আগে সাধারণ শিক্ষার্থীদের ব্যানারে তৃতীয় দিনের মতো বিশ্ববিদ্যালয়ে ক্লাস বর্জন কর্মসূচি পালন করেছে শিক্ষার্থীরা। সকাল সাড়ে ৭টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অপরাজেয় বাংলার পাদদেশে অবস্থান গ্রহণ নেয় শিক্ষার্থীরা। পরে মিছিল নিয়ে কলা ভবন হয়ে কার্জন হল প্রদক্ষিণ করে রাজু ভাস্কর্যের সামনে অবস্থান নেয়।

শিক্ষার্থীরা বলেন, অধিভুক্ত দেড় লাখ শিক্ষার্থীর দায়িত্ব নেয়ার ফলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার মান কমে যাওয়ার আশংকা করছি। পরে শিক্ষার্থীরা ভিসি অফিসের বাইরে অবস্থান নিয়ে বিক্ষোভ করে।

বেলা ১২টার দিকে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইন, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা সভাপতি আবিদ আল হাসান এবং সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স ঘটনাস্থলে আসেন। এসময় তারা ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে সমাধানের আশ্বাস দিয়ে ভিসির সাথে দেখা করতে যান।

ফিরে এসে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগ সভাপতি আবিদ আল হাসান শুধুমাত্র পাঁচজন প্রতিনিধিকে ভিসির সাথে দেখা করার কথা বললে আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা সবার সামনে কথা বলার আহ্বান জানায়। আন্দোলনে ষড়যন্ত্র আছে উল্লেখ করে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা সভাপতি আবিদ আল হাসান শিক্ষার্থীদের কারা কারা হলে থাকে তাদের হাত তুলতে বলেন। এসময় তিনি বলেন, কার কী উদ্দেশ্য দেখা দরকার।

বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক মোতাহার হোসেন প্রিন্স আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের হুমকি দিয়ে বলেন, বেশি চিৎকার দিলে খবর আছে।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আল আমিন তার নেতাকর্মীদের বলেন, ওদেরকে (আন্দোলনরতদের) কানে কানে বলে দে, তাড়াতাড়ি এখান থেকে চলে যেতে। তা না হলে ওদের মাইর খেয়ে যেতে হবে।

একপর্যায়ে ছাত্রলীগ কর্মীরা আন্দোলনরত নারী শিক্ষার্থীদের চারপাশ ঘিরে ধরে রাখে। এসময় নারী শিক্ষার্থীরা হেনস্তার শিকার হয়েছেন বলে অভিযোগ উঠে। বেলা সাড়ে ৩টার দিকে রোকেয়া হল ছাত্রলীগের সভাপতি বি এম লিপি আক্তার, কুয়েত মৈত্রী হলের ছাত্রলীগ সাধারণ সম্পাদক শ্রাবণী সায়েলা, বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হল ছাত্রলীগের সভাপতি বেনজীর হোসেন নিশির নেতৃত্বে একদল কর্মী আন্দোলনরত নারী শিক্ষার্থীদের ধাক্কা দিতে থাকে, গায়ে হাত তুলে এবং ব্যানার কেড়ে নিয়ে তাদের উঠিয়ে দেয়।

ঘটনাস্থলে ছবি তুলতে গেলে ইংরেজি দৈনিক ডেইলি স্টারের বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি অপুর মোবাইল কেড়ে নেওয়া হয়। একই সময় ভিডিও করায় এনটিভি অনলাইন প্রতিনিধি মামুন তুষারকে ধাক্কা দেন বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব হলের ছাত্রলীগ সভাপতি বেনজীর হোসেন নিশি।

আন্দোলনরত রোকেয়া হলের এক ছাত্রী নাম প্রকাশ না করার শর্তে বলেন, আমরা এখানে বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্মান রক্ষার্থে আন্দোলন করতে এসেছি। আমরা কেউ গাড়ি ভাঙচুর করিনি। অথচ আজকে ছাত্রলীগের নেতারা আমাদের ধাক্কা দিয়ে উঠিয়ে দিয়েছে। একজন ঢাবির শিক্ষার্থী হয়ে আজ লজ্জা লাগছে। তারা আমাদের মাঝখানে রেখে চারপাশে ঘিরে ধরে টিজ করছে। ধাক্কা দিচ্ছে। প্রশাসন কিছুই বলেনি

এ বিষয় জানতে চাইলে ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ বলেন, ছাত্রলীগের কেউ হামলা করেনি।

তাহলে ছাত্রলীগের মেয়ে হল শাখার নেতাকর্মীরা কেনো এসেছে- এমন প্রশ্নের জবাবে ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, তারা সবাই রেজিস্ট্রার ভবনে হয়তো কোনো কাজে এসেছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক আখতারুজ্জামান বলেন, কারো উপর হামলা হয়নি। হামলাকারী কেউ ছাত্রলীগের কেউ ছিল না। পরিবর্তন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত