প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ভারত সেনাপ্রধানের বক্তব্য পরমাণু যুদ্ধেরই ইন্ধন: পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী

ওমর শাহ: পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা মুহাম্মদ আসিফ বলেছেন, ‘ভারতের সেনাপ্রধানের বক্তব্য পরমাণু যুদ্ধের ইন্ধন দেয়। তাঁর এ বক্তব্য দায়িত্বজ্ঞানহীন । এ ধরণের বক্তব্য দেওয়া শোভনীয় নয়।’

ভারতের সেনাপ্রধান জেনেরেল বিপিন রাওয়াতের মন্তব্যের জবাবে এক টুইটে এ মন্তব্য করেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা মুহাম্মদ আসিফ। তিনি বলেন, ‘তাঁর এ বক্তব্য পারমাণবিক যুদ্ধকে আমন্ত্রণ করে। যদি তারা আমাদের শক্তিকে পরীক্ষা করতে চায়, তাহলে তাদের অভিনন্দন। আমাদের ইচ্ছে শক্তির পরীক্ষা করে দেখুক। ইনশাআল্লাহ! অচিরেই তাদের সন্দেহ খুব সহজে দূর হয়ে যাবে।’

শুক্রবার দিল্লিতে এক সাংবাদিক সম্মেলনে ভারতের সেনাপ্রধান জেনারেল বিপিন রাওয়াতকে প্রশ্ন করা হয়, সীমান্তের সমস্যা যদি আরও বেড়ে যায় তাহলে কি পাকিস্তান পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার করতে পারে? এর উত্তরে তিনি বলেন, ‘পাকিস্তানের মিথ্যে পরমাণু হুমকির জবাব দিতে আমাদের সেনারা সবসময় তৈরি আছে। যদি সরকার নির্দেশ দেয় তাহলে সীমান্ত পেরিয়ে যেকোনও ধরনের অপারেশন চালানো হবে।’

তার এ বক্তব্যের জবাব দিয়েছেন পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ড. মুহাম্মদ ফয়সা়লও। তিনি প্রথমে টুইট করে বলেন, ‘ভারতীয় সেনাপ্রধানের হুমকিপূর্ণ ও দায়িত্বজ্ঞানহীন মন্তব্য ভারতের ষড়যন্ত্রমূলক মানসিকতারই প্রমাণ দেয়। তবে পাকিস্তান যেকোনো হুমকি মোকাবেলার ক্ষমতা রাখে।’

তিনি বলেন, ‘এই বিষয়গুলি সহজভাবে নেওয়ার মতো নয়। ভুল ধারণার ফলে যেন কোনও ভুল অভিযান চালানো না হয়। পাকিস্তান কিন্তু নিজেদের রক্ষা করতে পুরোপুরি সক্ষম।’

এর আগে ২০১৬ সালের সেপ্টেম্বর মাসেও পরমাণু অস্ত্রের হুমকি দিয়েছিলেন পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী খাজা আসিফ। সেসময় তিনি বলেন ,  ‘আমাদের দেশে যে পরমাণু অস্ত্রের সম্ভার রয়েছে, তা সাজিয়ে রাখার জন্য বানানো হয়নি। কেউ যদি পাকিস্তানের ওপর হামলা চালায়, প্রয়োজনে তাদের ওপর ওই বোমা প্রয়োগ করা হবে। আমাদের নিরাপত্তা বিঘ্নিত হলে আমরা কোনোওভাবেই চুপ করে থাকব না। প্রয়োজনে তাদের ধ্বংস করে দেওয়া হবে।’ সূত্র: জিও নিউজ উর্দু

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ