প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

শিল্পকলায় ‘রবীন্দ্রনাথ’

ইমতিয়াজ মেহেদী হাসান : দীর্ঘ বিরতির পর পুনরায় পালাকার মঞ্চে নিয়ে আসছে ‘বাংলার মাটি বাংলার জল’। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ছিন্নপত্র অবলম্বনে নাটকটি রচনা করেছেন সব্যসাচী নাট্যকার সৈয়দ শামসুল হক এবং নাটকটির নির্দেশনা দিচ্ছেন দেশের সফল রবীন্দ্রনাট্য নির্দেশক আতাউর রহমান।

রোববার বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালায় সন্ধ্যা ৭টায় নাটকের ২৮তম প্রদর্শনীটি অনুষ্ঠিত হবে।

‘বাংলার মাটি বাংলার জল’ নাটকের সময়কাল ধরা হয়েছে ১৮৮৯ থেকে ১৮৯৫। এ সময়কাল রবীন্দ্রনাথের জীবনে সাধনা পর্যায় নামে পরিচিত। এই সাধনা ছিল রবীন্দ্রনাথের সম্পাদিত পত্রিকাগুলির মধ্যে অন্যতম এবং তাঁর সৃষ্টিউৎকর্ষের অন্যতম নিদর্শন। এই সময়টাতে তিনি বাংলাদেশে অবস্থান করেছেন, কাছ থেকে দেখেছেন বাংলার মানুষ, একান্ত হয়েছেন বাংলার বৈচিত্রময় প্রকৃতির সঙ্গে, যার চমৎকার চিত্র রয়েছে সেই সময়ে রচিত তাঁর সমস্ত রচনাকর্মে, বিশেষত ছিন্নপত্রে। মূলত এই বাংলার জল-বায়ু-মাটি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরকে প্রভাবিত করেছিলো, প্রভাবিত করেছিলো তাঁর রচনাকে।

প্রযোজনাটির উল্লেখযোগ্য দিক হচ্ছে, নাটকের কেন্দ্রীয় চরিত্র রবীন্দ্রনাথকে ঘিরেই নাট্য কাহিনীর আবর্তন। ফলে বাংলাদেশ এবং বিশ্বের নাট্যমঞ্চে এই প্রথম রবীন্দ্রনাথ চরিত্র হিসেবে আবির্ভূত হচ্ছেন। রয়েছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ভাতিজী ইন্দিরা দেবী চরিত্রটিও। সাথে সাথে তৎকালিন বাংলাদেশ তথা শিলাইদহ পতিসর শাহজাদপুরের বিচিত্র মানুষ এবং তাদের জীবনও উঠে এসেছে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের হাত ধরে।

নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে শামীম সাগর, দিপ্তা রক্ষিত লাভলী, শাহরিয়ার খান রিন্টু, আমিনুর রহমান মুকুল, শর্মীমালা, অনিকেত পাল বাবু, সেলিম হায়দার, নাহিদা শারমিন প্রমুখ অভিনয় করেছেন।

সর্বাধিক পঠিত