প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

উত্তরাঞ্চলে শীত নিবারণের সময় আগুনে দগ্ধ হয়ে ৬ জনের মৃত্যু

মোস্তাফিজার রহমান বাবলু,রংপুর : হিমশীতল বাতাসে কাবু সারাদেশের মানুষ। সবচেয়ে বেশি কষ্টে কর্মজীবীরা। আর তাইতো উত্তরাঞ্চলে শীত নিবারণ করতে গিয়ে আগুনে দগ্ধ হয়ে প্রাণ গেছে ৬ জনের।

এক সপ্তাহে রংপুর মেডিকেলে ভর্তি হয়েছেন আগুন পোহাতে গিয়ে, দগ্ধ হওয়া প্রায় অর্ধশত রোগী। এরই মধ্যে প্রাণ গেছে ৬ জনের। এদিকে শীত ও কুয়াশায় ব্যাহত হচ্ছে সুনামগঞ্জ হাওরাঞ্চলের বোরো আবাদ।

কিন্তু এই আগুনই যেন কাল হয়ে দাঁড়িয়েছে রংপুর অঞ্চলে। শীত নিবারণ করতে গিয়ে আগুনে পুড়ে এক সপ্তাহে প্রাণ গেছে ৬ জনের। আশঙ্কাজনক অবস্থায় রয়েছেন আরও অন্তত ৬ জন।

পঞ্চগড়, ঠাকুরগাঁও, নীলফামারী, কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাট ও গাইবান্ধার অন্তত অর্ধশত মানুষ দগ্ধ হয়ে ভর্তি হয়েছেন, রংপুর মেডিকলে। যাদের বেশির ভাগই নারী ও বৃদ্ধ।

রংপুর মেডিকেলের বার্ন ইউনিটের প্রধান ডাক্তার মারুফুল ইসলাম বলেন, প্রচন্ড কুয়াশা আর শীতে ব্যাহত হচ্ছে সুনামগঞ্জের হাওরাঞ্চলের বোরো আবাদ। শৈত্যপ্রবাহ থাকায় ভোরে ক্ষেতে নামতে পারছেন না কৃষকরা। এমনকি জমির কাদা পানিতে হালের গরুও নামানো যাচ্ছে না।

শীতের তীব্রতা থেকে ধানের চারা বাঁচাতে রাতে পলিথিন দিয়ে বীজতলা ঢেকে রাখার পরামর্শ দিচ্ছে কৃষিবিভাগ।
সারাদেশের মতো শীতের তিব্রতা বেড়েছে গোপালগঞ্জেও। পুরানো গরম কাপড়ের দোকানে এখন উপচেপড়া ভিড়।

জেলা প্রশাসনের উদ্যোগে বিভিন্ন এলাকায় কিছু কম্বল বিতরণও করা হয়েছে। যদিও তা পর্যাপ্ত নয়। আবহাওয়া অধিদপ্তর বলছে, শীতের এই তীব্র থাকবে আরও কয়েকদিন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত