প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

জাবির ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন

ডেস্ক রিপোর্ট : নানা আয়োজনে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের (জাবি) ৪৭তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উদযাপন করছেন শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা। গতকাল শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে জাতীয় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের পতাকা উত্তোলনের মধ্য দিয়ে দিবসের উদ্বোধন করেন উপাচার্য অধ্যাপক ফারজানা ইসলাম।

শিক্ষাবিদ ড. সুরত আলী খানের পরিচালনায় ১৯৬৮ সালের জুন মাসে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রকল্প বাস্তবায়ন শুরু হয়। ১৯৭০ সালের সেপ্টেম্বর মাসে রসায়নের অধ্যাপক ড. মফিজ উদ্দিন এ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম উপাচার্যের দায়িত্ব পান। পরের বছর ৪ জানুয়ারি থেকে ক্লাস শুরু হয়। ১২ জানুয়ারি এ বিদ্যাপীঠের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করেন তৎকালীন পূর্ব পাকিস্তানের গভর্নর।

২০০১ সালের ১২ জানুয়ারি তৎকালীন উপাচার্য অধ্যাপক আব্দুল বায়েসের উদ্যোগে প্রথম ‘বিশ্ববিদ্যালয় দিবস’ পালন করা হয় জাহাঙ্গীরনগরে।

৬৯৭ একর জমির ওপর প্রতিষ্ঠিত এই বিশ্ববিদ্যালয়ে বর্তমানে ৬টি অনুষদ ও ২টি ইনস্টিটিউটের অধীনে মোট ৩৬টি বিভাগের কার্যক্রম চলছে। প্রায় ১৫ হাজার ছাত্রছাত্রীর জন্য রয়েছে ১১টি আবাসিক হল।

শুভেচ্ছা জানিয়ে উদ্বোধনী বক্তব্যে উপাচার্য ৪৮ বছরের অগ্রযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের মর্যাদা বৃদ্ধির জন্য সবাইকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান। খবর ভোরের কাগজ’র।

পরে উপাচার্যের নেতৃত্বে শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা-কর্মচারীদের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত হয় আনন্দ শোভাযাত্রা। শোভাযাত্রায় বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগ, সামাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠনও অংশ নেয়। বিজনেস স্টাডিজ অনুষদের সামনে থেকে শুরু হওয়া শোভাযাত্রাটি সেলিম আল দীন মুক্তমঞ্চে গিয়ে শেষ হয়। এ ছাড়া বেলা সাড়ে ১১টা থেকে বিশ্ববিদ্যালয়ের মুক্তমঞ্চে ছাত্রকল্যাণ ও পরামর্শদান কেন্দ্রের আয়োজনে চলে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। বিকেলে পুতুল নাচের আসর বসে মুক্তমঞ্চে। আর পার্শ্ববর্তী কেন্দ্রীয় খেলার মাঠে হয় পিঠা মেলা।

এর আগে ক্যাফেটেরিয়ার সামনে ঐতিহ্যের ৪৮ বছর শিরোনামে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সময়কার ছবি প্রদর্শনীর আয়োজন করেন ইতিহাস বিভাগের ৩৯তম ব্যাচের শিক্ষার্থী একরামুল হক শুভ।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত