প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

২য় বিয়ের অনুমতি না পেয়ে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা!

রোকনুজ্জামান মানু, উলিপুর (কুড়িগ্রাম): কুড়িগ্রামের উলিপুরে ২য় বিয়ে করার অনুমতি না পেয়ে গলায় দড়ি পেঁচিয়ে স্ত্রীকে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা চালিয়েছে এক সাবেক সেনা সদস্য।

উপজেলার ধরনীবাড়ী ইউনিয়নের তেলিপাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে ।

জানা গেছে, তেলিপাড়া গ্রামের মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদের ২য় কন্যা নাসরিন আকতার সুমি (৩২) এর সাথে উপজেলার হাতিয়া ইউনিয়নের রামরামপুর গ্রামের ডা. আবুল হোসেনের পুত্র সাবেক সেনা সদস্য জাহাঙ্গীর আলম (৩৬) এর সঙ্গে ১৬ বছর পূর্বে বিয়ে হয়। বর্তমানে তাদের ঘরে এক ছেলে ও এক মেয়ে সন্তান রয়েছে।

এক বছর পূর্ব থেকে জাহাঙ্গীর আলম ২য় বিয়ে করার অনুমতি ও যৌতুকের দাবি করে আসছিল। তা না পেয়ে তাকে বিভিন্ন ভাবে শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন করে। এরই মধ্যে গোপনে ওই সাবেক সেনা সদস্য রংপুর শহরের ছিটকেল্লাবন্দ গ্রামের জনৈক আঃ সামাদের কন্যা রংপুর সেনানিবাস প্রয়াসে (প্রতিবন্ধি বিদ্যালয়) কর্মরত শামিমা আখতার সুমি (৩৩) কে ১ম স্ত্রীর অনুমতি ছাড়াই বিয়ে করেন।

এরপরও ২য় বিয়ের অনুমতি ও যৌতুকের চাপ অব্যাহত থাকা অবস্থায় নাসরিন আকতার সুমি নির্মম নির্যাতন সহ্য করতে না পেরে শনিবার বাবার বাড়ি তেলিপাড়া গ্রামে চলে আসেন। ওই দিন রাতে জাহাঙ্গীর আলম ও তার ২য় স্ত্রী শামিমা আকতার প্রথম স্ত্রী নাসরিন আকতার সুমির বাবার বাড়িতে আসেন। স্বামীর ডাকে সাড়া দিয়ে বাড়ির উঠানে বের হলেই আকস্মিক ভাবে তার উপর হামলা চালিয়ে তার শরীরের বিভিন্নস্থানে কিলঘুষি দিয়ে জখম করে ও তার গলায় রশি পেঁচিয়ে দুই জন মিলে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা চালায়।

এসময় তার আত্মচিৎকারে বাড়ির লোকজন এগিয়ে আসলে ওই সেনা সদস্য ও তার ২য় স্ত্রী পালিয়ে যায়। পরে স্বজনরা নাসরিন আক্তার সুমিকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন। বর্তমানে তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় হাসপাতালে রয়েছেন।

এ ঘটনায় গৃহবধূ বাদি হয়ে বৃহস্পতিবার স্বামী সাবেক সেনা সদস্য জাহাঙ্গীর আলম ও ২য় স্ত্রী শামিমা আখতার সুমির নামে উলিপুর থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রফিকুল ইসলাম সরদার জানান, ওই গৃহবধুকে গলায় রশি পেঁচিয়ে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়েছিল। তার গলায় রশি পেঁচানোর মোটা দাগ রয়েছে। বর্তমানে তিনি সুস্থ আছেন।

উলিপুর থানার অফিসার ইনচার্জ এসকে আব্দুল্যাহ আল সাইদ, নাসরিন আক্তার সুমি নামের এক গৃহবধূকে হত্যা চেষ্টায় দুই জনের বিরুদ্ধে মামলা হওয়ার কথা স্বীকার করে বলেন আসামিদের ধরার চেষ্টা চলছে।সম্পাদনা: উমর ফারুক রকি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত