প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

তুরাগ তীরে মুসল্লিদের ঢল

ডেস্ক রিপোর্ট : টঙ্গীর তুরাগ নদীর তীরে শুক্রবার আম-বয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু হচ্ছে ৫৩তম বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব। মুসলমানদের দ্বিতীয় বৃহত্তম এ সমাবেশকে সফল করতে প্রস্তুত প্রশাসন।

ইতোমধ্যে নিরাপত্তার চাদরে ঢেকে ফেলা হয়েছে পুরো ইজতেমা ময়দান। দলে দলে দেশ-বিদেশ থেকে আসছেন মুসল্লিরা। শুক্রবার অনুষ্ঠিত হবে বৃহত্তম জুমার নামাজ। নামাজে টঙ্গী ও আশপাশের এলাকার মুসল্লিরা অংশ নেবেন বলে আশা করছেন আয়োজকরা।

ইজতেমায় আগত বেশ কয়েকজন মুসল্লির সঙ্গে আলাপকালে তারা জানিয়েছেন, মাওলানা সা’দের আগমন বা ফিরে যাওয়াতে ইজতেমায় তেমন প্রভাব পড়েনি।

সরেজমিন দেখা গেছে, টুপি, জুব্বা, পাঞ্জাবি পরিহিত বিভিন্ন বয়সী মানুষের স্রোত এখন টঙ্গীর তুরাগমুখী। কেউ বাসে-মিনিবাসে চড়ে কেউবা ট্রেনে চড়ে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে ইজতেমা ময়দানে আসছেন। পুরো ইজতেমা ময়দান যেন এক জনসমুদ্র। খিত্তায় খিত্তায় চলছে রান্নাবান্না, তাসবিহ তাহলিল ও ধর্মীয় বিষয় নিয়ে আলোচনা।

ইজতেমার মুরুব্বিরা দলগতভাবে ভাগ হয়ে খিত্তায় খিত্তায় আলোচনা করছেন। এবারের ইজতেমায় অন্তত ১৩৫টি দেশের ১০ হাজারের বেশি বিদেশি মেহমান ছাড়াও দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা ১৬টি জেলার মুসল্লিরা প্রথম পর্বে অংশ নিচ্ছেন। ইজতেমা দুই পর্বে অনুষ্ঠিত হওয়ায় অনেকটা আরাম-আয়েসে ইবাদত-বন্দেগি করছেন মুসল্লিরা। মুসল্লিদের ওযু-গোসল নিয়ে কোনো ধরণের ভোগান্তির অভিযোগ পাওয়া যায়নি।

ইজতেমার ময়দানে ২৮টি খিত্তায় জেলা অনুসারে অবস্থান নিয়েছেন মুসুল্লিরা। ১৩টি গভীর নলকূপের মাধ্যমে সরবরাহ করা হচ্ছে সুপেয় পানি। পয়ঃনিষ্কাশন ও অযু-গোসলের জন্য নেয়া হয়েছে পর্যাপ্ত ব্যবস্থা।

খিত্তায় অবস্থানকারী মুসল্লিদের কয়েকজন জানান, এবারের ইজতেমায় নেয়া সব ধরনের প্রস্তুতি সন্তোষজনক। অযু, গোসল, রাস্তাঘাট এবং চলাচলে তাদের কোনো সমস্যা নেই। গতবারের চেয়ে এবারের আয়োজন অনেক বাড়ানো হয়েছে। এতে মুসুল্লিরা নির্বিঘ্নে তাদের প্রাত্যহিক কাজ করতে পারছেন।

এছাড়াও আজ সকালে আহসান উল্লাহ মাস্টার স্টেডিয়ামে দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে আগত পুলিশ সদস্যদের তাদের স্ব স্ব দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়া হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত আইজিপি মঈনুর রেজা চৌধুরী। বক্তব্য রাখেন ঢাকা রেঞ্জের অতিরিক্ত ডিআইজি আবুল কালাম সিদ্দিক, গাজীপুরের পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হারুন-অর-রশীদ, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. রাসেল শেখ।

এবারের ইজতেমায় প্রথম পর্বের আখেরি মুনাজাত অনুষ্ঠিত হবে ১৪ জানুয়ারি। দ্বিতীয় পর্ব শুরু হবে ১৯ জানুয়ারি। ২১ জানুয়ারি আখেরি মুনাজাতের মধ্য দিয়ে শেষ হবে এবারের বিশ্ব ইজতেমা। পরিবর্তন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত