প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ব্রেক্সিট নিয়ে নিজ দলেই বাধার মুখে থেরেসা

প্রত্যাশা প্রমিতি সিদ্দিক: ব্রেক্সিট সেক্রেটারি ডেভিড ডেভিস যুক্তরাজ্যের ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বের হয়ে যাওয়া প্রসঙ্গে এক বৈঠকে সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। এরফলে ব্রিটেনে আলোচিত ব্রেক্সিট নিয়ে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’কে নিজ দলের পক্ষ থেকেই বাঁধা-বিপত্তির মুখে পড়তে হচ্ছে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা। যদিও নতুন বছরকে সামনে রেখে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে ২০১৬ সালের গণভোটের রায়কে বাস্তবে পরিণত করতে হবে বলে তার শুভেচ্ছা বার্তাও প্রদান করেছেন।

বড়দিনের আগে ব্রেক্সিট সেক্রেটারির নেতৃত্বে এক সেমিনারে বিভিন্ন উল্লেখযোগ্য ব্যক্তিবর্গের উপস্থিতিতে ডেভিস গণভোটের ফলাফল উপেক্ষা করা যেতে পারে এমন মন্তব্য করেছেন। এসময় ইউরোপীয় ইউনিয়ন থেকে বের হয়ে আসার বিষয়ে নেয়া সিদ্ধান্তটিও পাল্টানো সম্ভব বলেও তিনি বলেন।
তবে বেক্সিট প্রসঙ্গে ডেভিসের মন্তব্যকে কেন্দ্র করে এক সূত্র ডেইলী মেইলকে জানায়, ব্রেক্সিট সেক্রেটারির ভাবনা অনুযায়ী এটি ঘটতে পারেনা। প্রধানমন্ত্রীর ভাবনার সাথেও এটি যায়না।

এদিকে, প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে নতুন বছর উপলক্ষ্যে দেয়া শুভেচ্ছা বার্তায় বলেন, নতুন বছরে উন্নয়নের ধারাকে সচল রাখতে তিনি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ। ব্রেক্সিট ইস্যুতে ২০১৬ সালের গণভোটের রায়কে পুনরায় তার শুুভেচ্ছা বার্তায় ব্যবহার করে তিনি বলেন ব্রেক্সিট ইস্যুতে সফল হওয়া অনেক কঠিন কাজ। জনগণের এই রায়কে সামনে রাখতে এবং ব্রেক্সিটের মাধ্যমে ভাল কিছু বের করে আনতে আমরা বদ্ধপরিকর।

তবে ব্রেক্সিট প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রীর দেয়া শুভেচ্ছা বার্তায় দৃঢ় মনোভাবের বিষয়টি উঠে আসলে ডেভিস দাবি করছেন ব্রেক্সিট সিদ্ধান্ত সম্পর্কে তার মন্তব্যকে ভুলভাবে ব্যাখ্যা করা হচ্ছে। তার এক মুখপাত্র জানায়, কারা ব্রেক্সিট থেকে বের হয়ে আসাকে সমর্থন করছে এবং কারা ব্রেক্সিট নাও হতে পারে ভেবে ভয় পাচ্ছে শুধু তা নিয়েই আলোচনা করেন। যদিও এরআগেও ব্রেক্সিট কিভাবে অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলবে তা নিয়ে বেশ কিছু প্রতিবেদন দেখানোর অভিযোগ উঠে ডেভিসের বিরুদ্ধে। ডেইলী মেইল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত