প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

সরকারি হুঁশিয়ারি সত্বেও বিক্ষোভ অব্যাহত ইরানে

মুফতি আবদুল্লাহ তামিম : ইরানের দ্রবমূল্য বিরোধী আন্দোলন রূপ নিয়েছে সরকার বিরোধী বিক্ষোভে। গত দুই দিনের এ বিক্ষোভ রাজধানী তেহরানসহ ৬টি শহরে ছড়িয়ে পড়েছে। তেহরান বিশ্ববিদ্যালয়ে এবং শহরের রাস্তায় ছাত্ররা জড়ো হয়েছে। পুলিশ টিয়ার গ্যাস নিক্ষেপ করে বিক্ষোভ প্রতিহত করার চেষ্টা করছে। কয়েকজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমেও চলছে সরকার বিরোধী প্রচারণা। সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে এ বিক্ষোভ কারো জন্যই ভালো হবে না।
স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আবদুল রহমান রহমানি ফাজালি বলেছেন, এ অবৈধ বিক্ষোভে কেউ অংশগ্রহণ করবেন না। এটা তাদের জন্য এবং সাধারণ নাগরিকদের জন্যও সমস্যার কারণ হয়ে দাঁড়াবে।
বিক্ষোভকারীরা প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি এবং তার সরকারের পদত্যাগ দাবি করছে। তারা বলছে, এ সরকার ক্ষমতায় থাকার অযোগ্য। দিন দিন দ্রব্যমূল্য লাগামছাড়া হয়ে যাচ্ছে। তবে সরকারি প্রচার মাধ্যমে ঘোষণা করা হয়েছে, আজ সরকারের পক্ষ থেকেই মিছিল হচ্ছে। বিক্ষোভকারীদের হটাতে সরকারী পক্ষ রাস্তায় নেমেছে।
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এক বার্তায় জানিয়েছেন, ইরানে কী হচ্ছে তার দিকে সারা বিশ্ব নজর রাখছে। ইরানি সরকার যা খুশি তা করতে পারবে না। তার কথার উত্তরে ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে জানানো হয়েছে, এসব মন্তব্য সুযোগ সন্ধানী ও প্রতারণপূর্ণ। তবে প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির একজন উপদেষ্টা হিশামুদ্দিন আশেনা টুইটারে এক বার্তায় জানিয়েছেন, ইরানের সমানে বেকারত্ব, দ্রব্যমূল্যের উর্ধ্বগতি, বৈষম্য এবং দুর্নীতিসহ অনেক গুরুতর সমস্যা রয়েছে। ২০০৯ সালেও একইরকম সরকারবিরোধী বিক্ষোভ শুরু হয়েছি। তখন সরকার তা কঠোরভাবে দমন করেছিল। বিবিসি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত