প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

গ্রিজমানকে নিতে ২০০ মিলিয়ন ইউরো লাগবে!

স্পোর্টস ডেস্ক: অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদের স্ট্রাইকার আতোইন গ্রিজমানকে দলে নিতে রীতিমতো প্রতিযোগিতায় নেমেছে ম্যানইউ, বার্সেলোনাসহ আরও বেশ কয়েকটি কাব। তবে এ ফরাসি ফরোয়ার্ডকে দলে ভেড়াতে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড এবং বার্সেলোনাই এগিয়ে। তবে গ্রিজমানকে কেনার জন্য আগ্রহী কাবগুলোর প্রতি সতর্কবার্তা বা রেড এলার্ট জারি করে বসল অ্যাতলেতিকো মাদ্রিদ!

একটি নয়, আগ্রহী কাবগুলোর প্রতি আসলে দুটি সতর্ক সংকেত দিল অ্যাতলেতিকো। প্রথমত, মাদ্রিদের কাবটি স্পষ্ট করে জানিয়ে দিল, ২৬ বছর বয়সী গ্রিজমানকে বিক্রি করার কোনো ইচ্ছা তাদের নেই। তারপরও যদি কোন কাব গ্রিজমানের পিছু নেয়, তাদের প্রতি অ্যাতলেতিকোর চূড়ান্ত সতর্কবার্তা, গ্রিজমানকে কিনতে গুণতে হবে ২০০ মিলিয়ন ইউরো!

দলবদলে খেলোয়াড়দের রিলিজ কজের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। তবে গত গ্রীষ্মের নেইমারের দলবদল রিলিজ কজ কে আরও বেশি গুরুত্বপূর্ণ করে তুলেছে। নেইমারকে বিক্রি করবে না বলেই তার উপর ২২২ মিলিয়ন ইউরোর রিলিজ কজ ঝুলিয়ে রেখেছিল বার্সেলোনা।

ভেবেছিল, এতো টাকা দিয়ে কোনো কাবই নেইমারকে কেনার সাহস দেখাবে না। কিন্তু বার্সেলোনা কর্তাদের সেই ধারণাকে মিথ্যা প্রমাণ করে রিলিজ কজের পুরো ২২২ মিলিয়ন ইউরো দিয়েই নেইমারকে দলে ভিড়িয়েছে পিএসজি।

ওই ঘটনার পর প্রতিটা কাবই তাদের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়দের রিলিজ কজের অঙ্কটা আকাশচুম্বি করায় মনোযোগী হয়েছে। না, গ্রিজমানের রিলিজ কজ এখনো বাড়ায়নি অ্যাতলেতিকো। তবে কাবটির প্রধান নির্বাহী মিগুয়েল অ্যাঙ্গেল গিল মারিন স্পষ্ট জানিয়ে দিলেন, আগামী জুলাইয়েই গ্রিজমানের রিলিজ কজ ২০০ মিলিয়ন ইউরো করা হবে!

কিন্তু তার আগেই যদি গ্রিজমানকে কেউ রাজি করিয়ে ফেলে? মারিন স্পষ্টই জানিয়ে দিয়েছেন, চাইলেও কোনো কাব এই মুহূর্তে গ্রিজমানকে নিতে পারবে না। যদি কেউ কিনতে চায়-ই, তাহলে তাদের অপো করতে হবে আগামী দলবদল মৌসুম পর্যন্ত। আর তার আগেই অ্যাতলেতিকো গ্রিজমানের রিলিজ কজ বাড়িয়ে ২০০ মিলিয়ন ইউরো করে ফেলবে! মানে তখন গ্রিজমানকে কিনতে হলে, ২০০ মিলিয়ন ইউরোই লাগবে।

‘প্রথমত, গ্রিজমানকে বিক্রি করার ইচ্ছা অ্যাতলেতিকোর নেই। এখন তো নয়ই, আগামী গ্রীষ্মেও না। কারণ, সে আমাদের খুবই গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। সে অনেক উন্নতি করেছে। আমরাও তাকে কেন্দ্র করে অনেক উন্নতি করেছি। একসঙ্গে পথচলাই আমাদের ল্য।’-মেগাকে দেওয়া এক সাাৎকারে বলেছেন মারিন।

গ্রিজমানের বর্তমান রিলিজ কজ মাত্র ১০০ মিলিয়ন ইউরো। এটা দেখেই অ্যাতলেতিকোর এই ফরাসি ফরোয়ার্ডকে কেনার প্রতি বিশেষ আগ্রহী হয়ে উঠেছে বার্সেলোনা। কারণ, নেইমারের বিকল্প সন্ধ্যানে বার্সার প্রধান ‘টার্গেট’ যিনি, সেই ফিলিপে কুতিনহোর জন্য চড়া মূল্যই হাঁকিয়ে বসেছে লিভারপুল। ১৫০ মিলিয়ন ইউরো দিয়ে কুতিনহোকে কেনার চেয়ে ১০০ মিলিয়ন ইউরোও গ্রিজমানকে কিনতেই বেশি আগ্রহী বার্সেলোনা।

সে জন্যই গ্রিজমানের পিছু নিয়েছে বার্সা। শুধু পিছু নেওয়া নয়, বার্সেলোনা সভাপতি জোসেফ মারিয়া বার্তোমেউ সরাসরি গ্রিজমানের সঙ্গেই চুক্তির বিষয় নিয়ে কথা বলেছেন। যা দলবদল নীতি বিরোধী কাজ! এই ‘কালো পথ’ বেছে নেওয়ায় বার্সেলোনার বিরুদ্ধে সরাসরিই ফিফার কাছে নালিশ করেছে অ্যাতলেতিকো। তাতেও যদি কাজ না হয়! তাই জারি করল রেড এলার্ট। বার্সেলোনা ও ইউনাইটেডকে ইঙ্গিত করে মারিন স্পষ্টই বলেছেন, ‘জুলাইয়ের মধ্যেই গ্রিজমানের রিলিজ কজ হবে ২০০ মিলিয়ন ইউরো।’

এরপরও বার্সেলোনা কিংবা ইউনাইটেড গ্রিজমানের দিকে ছুটবে?

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত