প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

কেসিসির ৮ পরিদর্শকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ

জুয়াইরিয়া ফৌজিয়া: আদায়কৃত অর্থ তহবিলে জমা না করে আত্মসাতের প্রমাণ মিলেছে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ট্রেড লাইসেন্স শাখার ৮ পরিদর্শকের বিরুদ্ধে। তদন্ত কমিটি ইতোমধ্যে এই পরিদর্শকের কাছ থেকে আত্মসাৎ করা অর্থ আদায়সহ প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করে রির্পোট জমা দিয়েছে। এই ঘটনায় নড়ে চড়ে বসেছে খুলনা সিটি কর্পোরেশন (কেসিসি)। রাজস্ব আত্মসাতে আর কেউ আছে কি না তা খতিয়ে দেখা শুরু করেছে ইতোমধ্যে। সূত্র- যমুনা টিভি

যে ৮ পরিদর্শকের বিরুদ্ধে অর্থ আত্মসাতের প্রমাণ মিলেছে তারা হলেন- হাবিবুর রহমান, মল্লিক সেলিম, খান শফিকুল, মনিরুল ইসলাম, হুমায়ুন কবির, মঞ্জুরুল আলম, শেখ শফিকুল, মোল্লা মোহাম্মদ আলী

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ট্রেড লাইন্সেস শাখায় অডিটের সময় নগরীর ৩১টি ওয়ার্ডের রাজস্ব আদায়ের ত্রুটি ধরা পড়ে। এর পরপরই সংশ্লিষ্ট সব শাখায় অডিটের উদ্যোগ নিয়েছে কেসিসি। প্রয়োজনীয় ২০৪টি নথি তলব করা হলে, জমা পড়ে মাত্র ১৯৩টি। অডিট কমিটি নথি যাচাই বাছাই করে দেখেন। ২০১৬- ১৭ অর্থ বছরে ৪ কোটি ৬২ লাখ টাকা আদায় হলেও প্রায় ২৫ লাখ টাকা কর্পোরেশনে জমা না দিয়ে আত্মসাৎ করেছে লাইন্সেস শাখার ৮ পরিদর্শক।

কেসিসি রাজস্ব কর্মকর্তা ও সদস্য তদন্ত কর্মকর্তা ওয়াহিদুজ্জামান খান বলেন, পুরো পদ্ধতি পরিবর্তন হয়ে গেছে। আর পরিবর্তন হয়ে যাওয়ার ফলে যাদের নাম আসছে তারা বিভিন্ন জায়গা থেকে সুদ গ্রহণ করেছে।

কেসিসি প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা পলাশ কান্তি বালা বলেন, চার্জ ডির্পাটমেন্টে জমা দেওয়ার ক্ষেত্রে যে চার্জ প্রদান করছে তার এবং এই দুইটি জায়গায় দুর্নীতি হচ্ছে বলে মনে করছি।

অদক্ষ জনবল এবং জবাবদিহিতার অভাবে কর্পোরেশনে বাড়ছে দুর্নীতি ও অনিয়ম এমনটাই বলছে কেসিসিতে কর্মরত স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

কেসিসি প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা আরিফ নাজমুল হাসান বলেন, কর্তৃপক্ষের নজরদারি যেভাবে থাকা দরকার সেভাবে হয়তো ছিলনা আর সে জন্যই এতো দুর্নীতি।

কেসিসি এর মেয়র মনিরুজ্জামান বলেন, দুর্নীতির সাথে জড়িত কাউকেই ছাড় দেওয়া হবে না। যে সমস্ত ত্রুটি বিচ্যুতি বের হয়েছে তাদেরকে নোটিশ করা হয়েছে এবং তাদের উপর অর্পিত দায়িত্বের যদি লঙ্ঘণ হয় তবে তার বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির ব্যবস্থা করা হবে।

পরিদশর্কদের দুর্নীতি ধরা পড়ায় ২০১৪-১৫ এবং ২০১৫-১৬ অর্থ বছরে সবকয়টি শাখায় পুনরায় অডিটের দাবি উঠেছে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত