প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দুঃস্বপ্ন দেখলে কী করবেন ?

সাইদুর রহমান : রাতে ঘুমানোর পর শয়তান মানুষের মনের উপর প্রভাব ফেলে। মানুষের মন নিয়ে শয়তান খেল-তামাসা করে। ভয়-ভীতি দেখায়। এজন্য ভালো স্বপ্ন হলে নির্ভরযোগ্য কাউকে বলা অন্যথায় খারাপ স্বপ্ন দেখলে কাউকে না বলা। কারণ খারাপ স্বপ্ন শয়তান থেকে সৃষ্ট। মানুষকে বললে হয়ত বিরুপ মন্তব্য করলে মনে অশান্তি সৃষ্টি হবে। তাছাড়া ভালো স্বপ্ন মুমিনের জন্য কল্যাণকর। মুমিনের সত্য স্বপ্নকে হাদীসে নবুওয়াতের ছেচল্লিশ ভাগের এক ভাগ বলা হয়েছে।

শয়তানের কারণে স্বপ্নে খারাপ কিছু দেখলে তখন কী করতে হবে হাদীসে এ বিষয়ে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। যেমন, আবূ সালামা (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি এমন স্বপ্ন দেখতাম যাতে ভয় পেয়ে জ্বরাক্রান্ত হয়ে পড়তাম, তবে আমাকে কম্বল মুড়ি দিতে হতো না। অবশেষে আমি আবূ কাতাদা (রা.) এর সাথে সাক্ষাত করলাম এবং ঐ বিষয়টি তার কাছে উল্লেখ করলাম। তিনি বললেন, আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে বলতে শুনেছি রু‘য়া (ভালো স্বপ্ন) আল্লাহর পক্ষ থেকে আসে আর দুঃস্বপ্ন শয়তানের পক্ষ থেকে আসে। সূতরাং তোমাদের কেউ যখন এমন স্বপ্ন দেখে যা সে অপছন্দ করে, তখন সে যেন তার বামদিকে তিনবার থু থু নিক্ষেপ করে এবং এর অনিষ্ট হাত আল্লাহর আশ্রয় প্রার্থনা করে (অর্থাৎ আউযুবিল্লাহ পড়ে), তা হলে তা তার ক্ষতি করবে না। (মুসলিম হাদীস নং ৫৭০০)

অন্য আরেক হাদীসে এসেছে, হযরত আবূ সালামা (রহ.) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন আমি এমন স্বপ্ন দেখতাম, যা আমাকে অসুস্থ করে দিত। তিনি বলেন, পরে আমি আবূ কাতাদা (রা.) এর সাথে সাক্ষাত করলাম (এবং আমার অসুবিধার বিষয়টি তাঁকে বললাম)। তখন তিনি বললেন, আমিও এমন স্বপ্ন দেখতাম, যা আমাকে অসুস্থ করে দিত। অবশেষে আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে বলতে শুনলাম, ভাল স্বপ্ন আল্লাহর পক্ষ থেকে। এবং তোমাদের কেউ যখন এমন (স্বপ্ন) দেখে যা সে পছন্দ করে, তা হলে তা তার ভালবাসার ব্যক্তি ছাড়া অন্য কারো কাছে ব্যক্ত করবে না। আর যখন এমন (স্বপ্ন) দেখে যা সে অপছন্দ করে, তা হলে সে যেন তার বামদিকে তিন (বার) থু থু নিক্ষেপ করে এবং সে শয়তানের অনিষ্ট ও স্বপ্নের অকল্যাণ থেকে আল্লাহর কাছে আশ্রয় প্রার্থনা করে এবং কাউকে তা না বলে। কেননা (এভাবে করলে) সে স্বপ্ন তার কোন ক্ষতি করবে না। (মুসলিম হাদীস নং ৫৭০৬)

মুমিনের স্বপ্নের গুরুত্বের বিষয়ে হাদীসে এসেছে, উবাদা ইবনু সামিত (রাঃ) থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম বলেছেনঃ মুমিনের স্বপ্ন নবুওয়তের ছেচল্লিশ অংশের একটি অংশ। মুসলিম হাদীস নং ৫৭১২
স্বপ্নে শয়তান মানুষের মন নিয়ে খেল-তামাশার বিষয়ে হাদীসে এসেছে, জাবির (রা.) থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, এক বেদুঈন নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম এর কাছে এসে বলল, ইয়া রাসুলাল্লাহ! আমি স্বপ্নে দেখলাম যেন আমার মাথা কেটে ফেলা হয়েছে এবং তা গড়াতে শুরু করেছে আর আমি তার পিছনে জোর দৌড় লাগলাম। তখন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম সে বেদুঈন আরবকে বললেন, তোমার ঘুমের মাঝে তোমার সাথে শয়তানের খেল-তামাশার বিষয় মানুষের কাছে ব্যক্ত করো না। জাবির (রা.) বলেন, এ ঘটনার পর আমি নাবী সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম কে ভাষণ দিতে শুনলাম। তাতে তিনি বললেন, তোমাদের কেউ ঘুমের মাঝে তার সাথে শয়তানের খেল-তামাশার বিষয় ব্যক্ত করবে না। (মুসলিম হাদীস নং ৫৭২৭ )

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত