প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নারায়ণগঞ্জ কারাগারে পোশাক কারখানা, জামদানি শিল্পের উদ্বোধন

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি : নারায়ণগঞ্জ জেলা কারাগারের ভেতরে রপ্তানিমুখী পোশাক কারখানা ও জামদানি উৎপাদন শিল্প কারখানা-রিজিলিয়ান্সের উদ্বোধন করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বুধবার সকালে এটি উদ্বোধন করেন।

উদ্বোধন শেষে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের বলেন, দেশের সবকটি কারাগারে পর্যায়ক্রমে পোশাক কারখানাসহ ছোট ও মাঝারি আকারে শিল্প গড়ে তোলা হবে। যাতে কারাবন্দিরা সাজাভোগ শেষে পরবর্তী সময়ে স্বাভাবিক জীবন গড়ে তুলতে পারেন।

জেলা কারাগারে পোশাক কারখানা বাস্তবায়ন করেছে কারা ও গণপূর্ত অধিদপ্তর। সহায়তা করেছেন সমাজসেবা অধিদপ্তর, নারায়ণগঞ্জের কয়েকটি ব্যবসায়ী সংগঠন ও শিল্প-কারখানার মালিক। কারখানায় প্রায় ৪০০ কারাবন্দি কাজ করতে পারবেন। সাজার মেয়াদ শেষে কারা শ্রমিকরা তাঁদের প্রাপ্য মজুরি এককালীন পাবেন।

এর আগে গাজীপুরের কাশিমপুর কারাগারে পোশাক কারখানা গড়ে তোলা হয়। তবে দেশে এটিই প্রথম কারাবন্দিদের জন্য একটু বড় আকারের কর্মসংস্থান বলে জানিয়েছেন কারা মহাপরিদর্শক (আইজি প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা কারাগারকে সংশোধনাগার মনে করি। সে জন্য আমরা বিভিন্ন কারিগরি প্রশিক্ষণ এই কারাগারে দিচ্ছি। যাতে তারা কারাগার থেকে বের হয়ে এই প্রশিক্ষণকে কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যৎ কর্মজীবনে প্রতিষ্ঠিত হতে পারে। সে জন্য আজকে এই কারাগারের ভেতরে গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রি হয়েছে। এই কারখানায় সব ধরনের সুযোগ-সুবিধা আছে। আশা করি কারাগারের এই গার্মেন্টস ইন্ডাস্ট্রি আমাদের মার্কেটে স্থান করে নিতে পারবে। আমরা পর্যায়ক্রমে সবগুলো কারাগারে এই ধরনের সুবিধা সম্বলিত ইউনিট গঠন করব। জামদানির জন্য একটি ইউনিটও এখানে আছে।’

কারাবন্দিদের মানসিক বিকাশের জন্য খেলাধুলাসহ বিনোদনের ব্যবস্থা করা হবে উল্লেখ করে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, কারাবন্দিরা যাতে স্বজনদের সঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন মনে না করেন সে কারণে মোবাইল ফোনে কথা বলার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। তাঁরা মাসে দুবার পরিবারের সঙ্গে মোবাইল ফোনে কথা বলতে পারবেন।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেন, কারাগারের ভেতরে মাদকসহ অবৈধ কোনো জিনিস যাতে ঢুকতে না পারে সে জন্য কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এ জন্য কারারক্ষীদের বিশেষ প্রশিক্ষণ ও গেটে স্ক্যান মেশিন বসানো হয়েছে।

এ সময় মন্ত্রীর সঙ্গে ছিলেন নারায়ণগঞ্জ-১ আসনের আওয়ামী লীগদলীয় সংসদ সদস্য গাজী গোলাম দস্তগীর বীরপ্রতীক, নারায়ণগঞ্জ-২ আসনের আওয়ামী লীগদলীয় সংসদ সদস্য নজরুল ইসলাম বাবু, নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনে আওয়ামী লীগদলীয় সংসদ সদস্য শামীম ওসমান, নারায়ণগঞ্জ-৫ আসনে জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য এবং বাংলাদেশ নিট পোশাক প্রস্তুত ও রপ্তানিকারকদের সমিতি-বিকেএমইএর সভাপতি এ কে এম সেলিম ওসমান, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা বিভাগের সচিব ফরিদ উদ্দিন আহম্মেদ, কারা মহাপরিদর্শক (আইজি প্রিজন) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল সৈয়দ ইফতেখার উদ্দিন, জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া, পুলিশ সুপার মঈনুল হক প্রমুখ।

সংসদ সদস্য সেলিম ওসমান বলেন, বাণিজ্য মন্ত্রণালয় সহযোগিতা করলে ও কারাগার কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনীয় কাগজপত্রসহ বায়ার আসার সুযোগ দিলে এখান থেকে তৈরি পোশাক বিদেশে রপ্তানি করে বছরে ১০ থেকে ১৫ লাখ ডলার আয় করা সম্ভব।

নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রশাসক রাব্বী মিয়া বলেন, কারখানায় ৬০টি সেলাই মেশিন রয়েছে। বিভিন্ন বিভাগে প্রায় ৪০০ কারাবন্দি কাজ করবে। তারা প্রত্যেকেই সাজার মেয়াদ শেষে বাড়ি ফিরে যাওয়ার সময় শ্রমের মজুরি বাবদ নগদ অর্থ নিয়ে যাবে। একই সঙ্গে কারাগারের ভেতরে জামদানি ও হস্তশিল্প কারখানা করা হয়েছে।

আইজি প্রিজন ইফতেখার উদ্দিন বলেন, দীর্ঘমেয়াদি বন্দিদের প্রশিক্ষণ দিয়ে প্রশিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব দেওয়া হবে এবং স্বল্পমেয়াদি বন্দিদেরও প্রশিক্ষণ দিয়ে এ কাজে লাগানো হবে। পরিবেশ অনুযায়ী বন্দিদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করা হবে।

পরে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ফতুল্লার পঞ্চবটি বিসিক শিল্পনগরীতে ফায়ার সার্ভিস অ্যান্ড সিভিল ডিফেন্স কার্যালয় উদ্বোধন করেন।

-এনটিভি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত