প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

‘খোদা আপনার মঙ্গল করবেন’, গুয়েতেমালার প্রেসিডেন্টকে নেতানিয়াহু

রাশিদ রিয়াজ : তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে দূতাবাস স্থানান্তরের সিদ্ধান্তের জন্যে গুয়েতেমালার প্রেসিডেন্ট জিমি মোরালেসকে ধন্যবাদ জানিয়ে ইসরায়েরের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু বলেছেন, ‘খোদা আপনার মঙ্গল করবেন, হে আমার বন্ধু, খোদা ইসরায়েল ও গুয়েতেমালার মঙ্গল করবেন’। এক যৌথ সাংবাদিক সম্মেলনে নেতানিয়াহু জিমির সঙ্গে করমর্দন করেন ও ক্রিসমাসের দিনে তাকে এধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্যে অভিনন্দন জানান। তবে ফিলিস্তিনিদের ওয়েবসাইট ওয়াফা বলেছে, আন্তর্জাতিক নীতি লঙ্ঘন ও প্রতিশ্রুতি ভঙ্গ করে এধরনের সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্যে ইতিহাসে ভুল দিকে অবস্থান নেবে গুয়েতামালা।

ফেসবুকে প্রেসিডেন্ট জিমি এক বার্তায় বলেন, নেতানিয়াহুর সঙ্গে কথা বলার পরই তিনি তার দেশের রাজধানী তেল আবিব থেকে জেরুজালেমে স্থানান্তর করেছেন। গত ৬ ডিসেম্বর মার্কিন প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী ও তার দেশের দূতাবাস সেখানে স্থানান্তরের ঘোষণা দেন যা দেশটির কয়েক দশকের পররাষ্ট্রনীতির বরখেলাপ। ইতিমধ্যে জাতিসংঘের সদস্য ১২৮টি দেশ ট্রাম্পের ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে এক নিন্দা প্রস্তাব পাশ করে। গুয়েতামালা ও হন্ডুরাস মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের অর্থ সাহায্যের ওপর নির্ভরশীল এবং ট্রাম্প ইতিমধ্যে জেরুজালেমকে ইসরায়েলের রাজধানী করার সিদ্ধান্তের বিপরীতে অবস্থান নেওয়ার জন্যে দেখে নেবেন বলে হুমকি দিয়েছেন।

১৯৮০ সালের আগে গুয়েতমালা, বলিভিয়া, চিলি, কলোম্বিয়া, কোস্টারিকা, দি ডোমিনিকান রিপাবলিক, ইকুয়েডর, এল সালভেদর, হাইতি, দি নেদারল্যান্ড, পানামা, ভেনিজুয়েলা ও উরুগুয়ের দূতাবাস জেরুজালেমে ছিল। ওই বছর ইসরায়েলের অনুপস্থিতিতে জাতিসংঘে জেরুজালেমকে ‘ অবিভক্ত ও শ্বাসত রাজধানী’ ঘোষণা করে একটি আইন পাশ করার পর নিরাপত্তা পরিষদে একটি গৃহীত প্রস্তাব অনুসারে তেল আবিবে বিভিন্ন দেশ দূতাবাস স্থানান্তর করে।

এদিকে গুয়েতেমালায় ইসরায়েলের রাষ্ট্রদূত ম্যাটি কোহেন দেশটির আর্মি রেডিওকে বলেছেন, দিন তারিখ ঠিক না দূতাবাস স্থানান্তর শুরু হবে। তবে যুক্তরাষ্ট্র বলেছে দূতাবাস স্থানান্তর করতে দুই বছর সময় লাগবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত