প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বিষয়টি বিবেচনায় নিতে হবে

ড. দিলারা চৌধুরী : প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারি শিক্ষকরা তাদের বেতন এর জন্য যে অনশন করেছে, এতে অবশ্যই একটা যৌক্তিকতা আছে। শিক্ষকদের যে গ্রেডিং করা হয়েছে, সেটা তাদের জন্য অসম্মান জনক। যে সমাজে শিক্ষকের সম্মান নেই, সেখানে তো আমরা আশা করতে পারি না, কাউকে শিক্ষিত নাগরিক হিসাবে গড়ে তুলতে। সম্মানের স্থানটা হলো আমাদের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

আমরা দেখেছি, জিলা স্কুলের যে প্রধান শিক্ষক বা অন্যান্য শিক্ষকদেরকে ভীষণভাবে সম্মানিত করা হতো। তাদেরকে একটা এলিট ভাবা হতো, ইন্টিলেকচুয়াল প্লেস ছিল তাদের। সমাজে তাদের যেমন সম্মান করা হতো, প্রাইমারি স্কুলের শিক্ষকদের সেভাবে সম্মান করা হয় না। এরপর যে তাদের মিনিমাম বেতন পাওয়ার দরকার, সেটাও তারা পায় না। সুতরাং আমি তাদেরকে এবং তাদের দাবিগুলোকে সাপোর্ট করি । সরকারকে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের এ বিষয়টি বিবেচনায় নেওয়ার আহবান করছি।

পরিচিতি : শিক্ষাবিদ
মতামত গ্রহণ : রাশিদুল ইসলাম মাহিন
সম্পাদনা : মোহাম্মদ আবদুল অদুদ

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত