প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

দৃষ্টিকটু ব্যানার ফেস্টুন
ছয় কোচিং সেন্টারের লাইসেন্স বাতিল

কেএম হোসাইন : ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের প্রধান রাজস্ব কর্মকর্তা রবীন্দ্র শ্রী বড়ুয়া বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে একটা অন্যতম অঙ্গীকার ছিলো পরিষ্কার এবং সবুজ ঢাকা গড়ব। সেই সুন্দর সবুজ ঢাকা গড়ার জন্য আমরা কতগুলা পদক্ষেপ নিয়েছি।

৬টি কোচিং সেন্টারের লাইসেন্স বাতিল করার কারণ এসব কোচিং সেন্টারের বিজ্ঞাপনের ব্যানার পোস্টার সাইনবোর্ডের দিয়ে রাজধানীন ফার্মগেট এলাকায় অপরিচ্ছন্ন করে রেখেছে। যা দেখতে দৃষ্টিকটু লাগে।

সেজন্য ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশনের বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ এসব কোচিং সেন্টারের লাইসেন্স বাতিলের সুপারিশ করলে। ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন তাদের লাইসেন্স বাতিল করে।

ফারজানা রুপা’র সঞ্চালনায় একাত্তর টেলিভিশনের নিয়মিত অনুষ্ঠান একাত্তর জার্নালে তিনি একথা বলেন। এছাড়া ছিলেন ডিবিসি নিউজের সম্পাদক জায়েদুল আহসান পিন্টু।

রবীন্দ্র শ্রী বড়–য়া বলেন, ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন প্রথমেই তাদের লাইসেন্স বাতিল করেনি। কোচিংয়ের লাইসেন্স বাতিলের আগে বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ বেশ কয়েকবার তাদের সাথে বৈঠক করেছে। যাতে তারা এসব বিজ্ঞাপন, ব্যানার, লিফলেট দ্রুত সরিয়ে নেয়। কিন্তু তারা সেটি করেনি। বৈঠকের পরে কিছু কিছু কোচিং সেন্টার এগুলো সরিয়ে নিয়েছে। কিন্তু যারা সরিয়ে নেয়নি। বর্জ্য ব্যবস্থাপনা বিভাগ রাজস্ববিভাগকে অনরোধ করে। এসব কোচিং সেন্টারের লাইসেন্স বাতিলের জন্য। তারই ধারাবাহিকতায় আমাদের কর অঞ্চল-৫ তাদের লাইসেন্স বাতিল করে দেয়।

এক প্রশ্নের জবাবে রবীন্দ্র শ্রী বড়–য়া বলেন, ট্রেড লাইসেন্স বাতিলের করা হলে তারা আর তাদের প্রতিষ্ঠানের কোন কার্যক্রম আর চালাতে পারবে না। এর আগে ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত করা হয়। এসব প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করে সর্তক করা হয়। তাতেও কাজ হয়নি। তাই আমরা ট্রেড লাইসেন্স বাতিল করেছি। তারা যদি কার্যক্রম পরিচালনা করে সেক্ষেত্রে ঢাকা উত্তর সিটি কর্পোরেশন কোচিং সেন্টার কতৃপক্ষের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নিতে পারবে।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত