প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

হারিরিকে পদত্যাগে জোর করেছিলো সৌদি, দাবি নিউইয়র্ক টাইমস’র

মরিয়ম চম্পা : লেবাননের প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরিকে পদত্যাগ করতে জোর করেছিলো সৌদি আরব বলে দাবি করেছে মার্কিন প্রভাবশালী গণমাধ্যম নিউ ইয়র্ক টাইমস। নিউইয়র্ক টাইমস-এর এক প্রতিবেদনে বলা হয়, প্রধানমন্ত্রী সাদ হারিরি আলোচিত সৌদি ক্রাউন প্রিন্স সালমানের সাথে দেখা করতে রিয়াদে যান। কিন্তু রিয়াদে পা রাখার পরপরই যেন ঘটনা মোড় নেয় ভিন্ন দিকে। সৌদি নিরাপত্তা বাহিনীর হস্তক্ষেপে অকস্মাৎ পদত্যাগে বাধ্য করা হয় তাকে।
ভিন্ন একটি প্রতিবেদনে বেনামি পশ্চিম লেবানন কর্মকর্তাদের বরাত দিয়ে বলা হয়, তখন লেবাননের এই নেতার পাসপোর্ট পর্যন্ত আটকে দেওয়া হয়। এ সময় তার ব্যক্তিগত ফোন বন্ধ রাখার পাশাপাশি পদত্যাগ বক্তব্য পেশ করার আগ পর্যন্ত তাকে শতাধিক দেহরক্ষী পরিবেষ্টিত করে রাখা হয়। পরবর্তীতে বিদেশি কূটনীতিকদের সুপারিশের পর তিনি সৌদি থেকে মুক্ত হয়ে সপরিবারে ফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে চলে যান।
নভেম্বরের শুরুর দিকে এক টেলিভিশন বক্তৃতায় লেবাননের শিয়াপন্থি হিজবুল্লাহ এবং ইরানের হস্তক্ষেপ সহ বিভিন্ন বিষয়ে শংকিত হওয়ার পাশাপাশি জীবন শংসয়ের মধ্যে ছিলেন বলেন জানান প্রধানমন্ত্রী হারিরি। পশ্চিমা কূটনীতিক এবং লেবাননের অফিসিয়াল বিবৃতির একাংশে বলা হয়, সৌদি সরকার মনে করেছে এই নাটকীয় পদত্যাগের ফলে দেশটিতে হিজবুল্লাহ বিরোধী বিক্ষোভ ছড়িয়ে পরবে। যদিও এই উদ্দেশ্য বাস্তাবায়নে ব্যর্থ হয়েছে সৌদি। আল-জাজিরা

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত