প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ঐতিহ্য ভেঙ্গে ব্রিটিশ রাজ-পরিবারের সঙ্গে বড়দিনের উৎসবে মেগান

লিহান লিমা: আফ্রো-আমেরিকান হলিউড অভিনেত্রী মেগান মের্কেলের সঙ্গে ব্রিটিশ রাজপুত্র প্রিন্স হ্যারির বাগদানের খবরে একটু নড়েচড়ে বসেছিল বিশ্ব। কিন্তু বড়দিনে এবার সমালোচকদের বুড়ো আঙ্গুল দেখালেন মেগান। রাজপরিবারের কোন সদস্য না হয়েও শুধুমাত্র প্রিন্সের বাগদত্তা হিসেবে রাণী এলিজাবেথের সঙ্গে বড়দিন পালন করে নতুন ইতিহাস সৃষ্টি করেছেন তিনি।

যদিও ডিভোর্সি, প্রোটেস্টান্ট খ্রিষ্টান, টিভি অভিনেত্রী, গায়ের কালো রং, হ্যারির চেয়ে বয়সে বড়, সবকিছু মিলিয়ে রক্ষণশীল ও নিয়মতান্ত্রিক ব্রিটিশ রাজপরিবারে স্থান করে আগেই নতুন যুগের সূচনা করেন মেগান। বললে ভুল হবে না, রাজপরিবারের নিয়মের তোয়াক্কা না করা শ্বাশুড়ি প্রিন্সেস ডায়নার রেকর্ডও ভেঙ্গে দিয়েছেন ‘প্রিন্স চার্মিং’ খ্যাত হ্যারির এই বাগদত্তা।

বড়দিনে রাণী এলিজাবেথ তার ভাষণে স্বয়ং মেগানকে স্বাগত জানান। রাণীর টেবিলে স্থান করে নেয় হ্যারি-মেগান জুটির ছবি।

সোমবার প্রিন্স উইলিয়ামের স্ত্রী কেট মিডলটনের সঙ্গে সান্দ্রিংহামের চার্চে বড়দিনের উৎসবে যোগ দেন মেগান। সেখানে উপস্থিত ছিলেন প্রিন্স ফিলিপ ও প্রিন্স চার্লস, প্রিন্স হ্যারিসহ রাজপরিবারের অন্য সদস্যরা। রাজ পরিবারের নিয়ম মেনে মেগান রাণীকে কুর্নিশ করেন। এই সময় জনগণের সঙ্গে শুভেচ্ছা বিনিময়ের আগে হ্যারি-মেগানকে বাক্যবিনিময় করতে দেয়া যায়, হয়তো প্রেমিকাকে উৎসাহিত করছিলেন হ্যারি।

বড় দিনের সকালে রাজপরিবারের সদস্যদের দেখার জন্য চার্চের আশেপাশে অনেক লোক জমায়েত হয়েছিলেন। তারা ফুল দিয়ে রাজপরিবারের সদস্যদের শুভেচ্ছা জানায়। এর মধ্যে মার্কিন নাগরিক লিন্ডসে ওয়েলস বলেন, মেগান রাজপরিবারে বিয়ে করতে যাচ্ছেন, সেটা খুবই ‘ঈর্ষণীয়’ ও ‘উত্তেজনাকর’। তাই তাকে কাছ থেকে দেখার জন্যই তিনি এখানে এসেছেন।।

প্রসঙ্গত, ২০১৮ সালের ১৯ মে বিয়ে-বন্ধনে আবদ্ধ হবেন রাজপরিবারের এই নতুন জুটি। এর আগে ধর্মবিশ্বাস পরিবর্তন করতে হবে মেগানকে। তবে গুঞ্জন উঠেছে, মেগান ইতোমধ্যেই বাপটাইজ হয়েছেন। ডেইলি মেইল, ফিনেন্সিয়াল টাইমস।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত