প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আসলেই কি এবার শিক্ষকদের বৈষম্য দূর হবে?

ওয়ালি উল্লাহ সিরাজ : প্রামিক শিক্ষকদের অনশন আজ শেষ হয়েছে। বেতন স্কেলে বৈষম্য দূর করার দাবিতে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষকদের পানি ও জুস খাইয়ে আমরণ অনশন ভাঙালেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষামন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান। আশ্বাসের ভিত্তিতে অনশন ভাঙায় অনেক শিক্ষক ক্ষুদ্ধ প্রতিক্রিয়া ব্যক্ত করেন। মন্ত্রী বলেছেন, শিক্ষকদের যে দাবি সেটা সরকার অবশ্যই বিবেচনা করবে। আসলে শিক্ষকদের এই দাবি অনেক দিন আগে থেকেই করে আসছে। একটি কথা হচ্ছে যে দলই ক্ষমতায় আসন না কেন তারাই কিন্তু শিক্ষকদেরকে শুধু ব্যবহার করেন। তারা বলে থাকেন শিক্ষকদের দাবি পূর্ণ করা হবে কিন্তু বাস্তবে সেটা করা হয় না।

সোমবার দিবাগত রাতে চ্যানেল আইয়ের আজকের সংবাদপত্র অনুষ্ঠানে এমন মন্তব্য করেন সমকালের নির্বাহী সম্পাদক মুস্তাফিজ শফি।

তিনি আরো বলেন, আজকে অনেক পত্রিকা নিউজ করেছে আবারও আশ্বাস। আমরাও এমন একটা নিউজ করেছি। আসলেই কি এবার শিক্ষকদের বৈষম্য দূর হবে? শিক্ষকদের বেতনের ক্ষেত্রে যে বৈষম্য আছে সেটা কিন্তু সামান্য বৈষম্য নয় বরং বড় ধরণের একটি বৈষম্য। তবে আমি বলবো এখানে টাকার বৈষম্যটা খুব বেশি বড় নয়। বরং মনস্তাত্ত্বিক বিষয়টা বড়। আমরা সব সময়ই বলে থাকে যে, আমাদের নতুন প্রজন্মকে শিক্ষিত করে গড়ে তুলতে হবে। কিন্তু যারা আমাদের সন্তানদেরকে শিক্ষা দেবেন তাদের বেতন-ভাতার বিষয়টা যদি ঠিক না থাকে তাহলে তারা কিভাবে শিক্ষাকার্যক্রমে মন দেবেন?

মুস্তাফিজ শফি আরো বলেন, একজন শিক্ষক যদি শান্তিতে কাজ করতে না পারেন তাহলে আমরা কিভাবে এই শিক্ষিতি প্রজন্মকে শিক্ষিত করে গড়ে তুলবো? বর্তমান সময়টা এমনিতেই খুব চ্যালেঞ্জের সময়।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত