প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

নামে ‘টেকনিক্যাল ডিরেক্টর’ কাজে হেড কোচ

ডেস্ক রিপোর্ট : চন্ডিকা হাথুরুসিংহে পদত্যাগ করার পরই একটি নাম শোনা যাচ্ছিল দেশের ক্রিকেটাঙ্গনে। আসন্ন ত্রিদেশীয় সিরিজ ও শ্রীলঙ্কা সিরিজে টাইগারদের অন্তবর্তীকালীন কোচ হচ্ছেন খালেদ মাহমুদ সুজন। অবশেষে সেই জল্পনা-কল্পনাই সত্যি হতে যাচ্ছে। সামনের দুটি সিরিজে টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসেবে বিসিবি সুজনকে রাখলেও দায়িত্বটা আসলে হেড কোচেরই!

টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হিসেবে ঠিক কী ধরনের দায়িত্ব থাকবে-এমন প্রশ্নে সুজন জানান, ‘একরমভাবে যদি বলা হয় হেড কোচ নাই এই সিরিজে। কিন্তু আমার দায়িত্বটা ওরকমই হবে। হয়তবা কোচের পরিবর্তে নামটা পরিবর্তন হবে। টেকনিক্যাল ডিরেক্টর হবে। কাজটা ওই রকমই থাকবে। যখনই আমাকে বাংলাদেশ ক্রিকেটের কোনও দায়িত্ব দেয়া হয়েছে আমি চেষ্টা করি সেটা ঠিকভাবে করতে। আর আমার কাছে পদ বা ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ না। বাংলাদেশ টিমের জন্য কাজ করি এটাই সবচেয়ে বড় জিনিস। এটা আমার জন্য একটা সুযোগ। আমি এই সুযোগ দুই হাতে লুফে নিব। আমার যতটুকু সামর্থ্য আছে, ক্রিকেট জ্ঞান আছে, কোচিং দক্ষতা আছে সেটা অবশ্যই এই সিরিজে কাজে লাগাব।’

হাথুরুসিংহে দায়িত্ব নিয়েছেন শ্রীলঙ্কার হেড কোচ হিসেবে। তাতে বিপদ বেড়েছে বাংলাদেশের। লম্বা সময় টাইগারদের সঙ্গে থাকায় জানেন সাকিব-তামিম-মুশফিক-মিরাজ-মোস্তাফিজদের শক্তি ও দুর্বলতা। যে কারণে শ্রীলঙ্কা সিরিজে কৌশল কিছুটা বদলের কথাও বললেন খালেদ মাহমুদ, ‘চন্ডিকা যেহেতু সাড়ে তিন বছর আমাদের মধ্যে ছিল। আমাদের ভাল-মন্দ অবশ্যই সে জানে। আমাদেরও সেভাবে পরিকল্পনা করতে হবে। পরিবর্তন কিছু করতে হবে। মাঠে গিয়ে যদি পরিকল্পনা অনুযায়ী খেলতে না পারি তাহলে কঠিন। দলের পরিকল্পনা কার্যকর করার মতো খেলোয়াড় আছে, অভিজ্ঞ খেলোয়াড় আছে। ২০১৮ তে আমাদের শুরুটা যাতে ভাল হয় আমরা সেভাবেই চিন্তা করব।’

শ্রীলঙ্কা দলকে সমীহ করলেও ঘরের মাঠে খেলা বলে আসন্ন সিরিজে বাংলাদেশকেই এগিয়ে রাখছেন সুজন, ‘অবশ্যই হোম কন্ডিশন আমরা বরাবরই ভাল দল। কিন্তু শ্রীলঙ্কাকে ছোটভাবে নেয়ার কিছু নাই। ভারতের সঙ্গে খারাপভাবে হারলেও তারা দারুণ একটা দল।’

২০১৫ বিশ্বকাপ থেকে বিভিন্ন সময়ে বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদকে দেখা গেছে জাতীয় দলের ম্যানেজারের ভূমিকায়। ২০১৬ সাল থেকে আবাহনীর কোচ হিসেবে কাজ করছেন। ২০১৩ বিপিএলে চিটাগং কিংসের কোচ ছিলেন। গত বিপিএল থেকে ঢাকা ডায়নামাইটসের কোচ হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। ঢাকা প্রথম বিভাগের বর্তমান চ্যাম্পিয়ন শাইনপুকুর ক্রিকেট ক্লাবেরও কোচ তিনি। এবার কাজ করবেন টেকনিক্যাল ডিরেক্টরের ছায়ায় জাতীয় দলের হেড কোচ হিসেবে।

সূত্র : চ্যানেলআই অনলাইন

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত