প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

চীনে সেদিন ১০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছিল

ডেস্ক রিপোর্ট : তিন দশক আগে বেইজিংয়ের তিয়ানানমেন স্কয়ারে গণতন্ত্রপন্থিদের আন্দোলন দমাতে চীনা সেনাবাহিনীর অভিযানে অন্তত ১০ হাজার মানুষ নিহত হয়েছিলো। সম্প্রতি যুক্তরাজ্যের একটি কূটনৈতিক নথিতে এ তথ্য প্রকাশিত হয়।

ঘটনার পরপর চীনে অবস্থানরত তৎকালীন ব্রিটিশ রাষ্ট্রদূত অ্যালান ডোনাল্ড লন্ডনে একটি গোপন তারবার্তা পাঠিয়েছিলেন, তাতেই এই তথ্য উঠে আসে বলে জানায় বিবিসি।

যুক্তরাজ্যের জাতীয় আর্কাইভ থেকে ডোনাল্ডের সেই বার্তাটি সম্প্রতি প্রকাশ করা হয়েছে।

এর আগে ওই ঘটনায় মৃতের সংখ্যা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা করা হয়েছিলো। চীন সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছিলো ১৯৮৯ সালের ৪ জুনের ওই অভিযানে ২০০ বেসামরিক নাগরিক ও নিরাপত্তা বাহিনীর কয়েক ডজন সদস্য নিহত হয়।

তবে নিহতের সংখ্যা যে এত বেশি সে তথ্য চীনের স্টেট কাউন্সিলের সদস্য ডোনাল্ডের এক বন্ধুর কাছ থেকে পেয়েছিলেন বলে গোপন বার্তায় উল্লেখ করেছিলেন ডোনাল্ড।

ফলে তথ্যটি ‘নির্ভরযোগ্য’ বলেই ওই বছরের ৫ জুন লন্ডনে তিনি বার্তাটি পাঠান।

ওই দিনের মর্মান্তিক ঘটনার বর্ণনায় ডোনাল্ড তার বার্তায় লেখেন, “স্কয়ারে (তিয়ানানমেন) সমবেত হওয়া ছাত্রদের সরে যেতে এক ঘণ্টা সময় দেওয়া হলেও মূলত পাঁচ মিনিট পরই আক্রমণে যায় এপিসি।”

“ছাত্ররা হাতে হাত ধরে দাঁড়িয়ে গেলেও সেনারা তাদের উপর গুলি চালায়। এরপর মাটিতে পড়ে থাকা মৃতদেহগুলোর উপর দিয়ে দফায় দফায় ট্যাঙ্ক চালিয়ে পিষ্ট করা হয় এবং দেহাবশেষগুলো বুলডোজার দিয়ে সরিয়ে ফেলা হয়। পরে হোস পাইপ দিয়ে স্কয়ার পরিষ্কার করে ফেলা হয়।”

তিনি বার্তায় আরও বলেন, “ওই সময় আহত চারজন ছাত্রী প্রাণভিক্ষা চাইলেও তাদের উপর বেয়োনেট চালানো হয়।”

সাত সপ্তাহ স্থায়িত্ব ছিল  কমিউনিস্ট চীনের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় এই গণতান্ত্রিক। চীনে এখনও ওই আন্দোলন নিয়ে সব ধরনের আলোচনা নিষিদ্ধ। সূত্র : বিডি নিউজ২৪

 

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত