প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

আমার ব্যাংক, মাটির ব্যাংক

মীর লিয়াকত আলী : শিশুকাল থেকেই শিক্ষার্থীদের মধ্যে সঞ্চয়ী মনোভাব গড়ে তোলার লক্ষ্যে আমতলী মডেল স্কুল ব্যতিক্রমধর্মী এক উদ্যোগ গ্রহণ করেছে। সেটি হলো ‘আমার ব্যাংক’ বা মাটির ব্যাংকে টাকা গচ্ছিত রাখা। এই কর্মসূচি আপনার সন্তানের নিরাপদ শিক্ষায় ভবিষ্যৎ নিশ্চিত করবে।
গ্রামগঞ্জের স্কুলগুলোতে শিক্ষার ব্যয়ভার মেটাতে অভিভাবকদের হিমশিম খেতে হয়। বছরের শুরুতেই ভর্তি, সেশন ফি, বই খাতাপত্র ও পোশাকের জন্য দরকার হয় অতিরিক্ত টাকার। সেই টাকা অনেক অভিভাবকের পক্ষে সংগ্রহ করা সম্ভব হয় না। এ নিয়ে অভিভাবকের সঙ্গে স্কুল কর্তৃপক্ষের বাকবিত-া হয়। ফলে শিক্ষার্থীরা লেখাপড়ায় আগ্রহ হারিয়ে ফেলে, ভেঙ্গে যায় তাদের মনোবল। এমনকি তাদের পড়ালেখাও বন্ধ হয়ে যায়।

এই উপলব্ধি থেকেই আমতলী মডেল স্কুল ‘আমার ব্যাংক’ বা মাটির ব্যাংকে টাকা জমানোর পদ্ধতি চালু করেছে। এই পদ্ধতিতে কোনো খরচ, হয়রানি বা সন্দেহের অবকাশ নেই।
বছরের শুরুতেই শিক্ষার্থীদের নামের এসব ব্যাংক একটি নির্দিষ্ট জায়গায় রেখে তালাবদ্ধ থাকবে। অবশ্য ব্যাংকে টাকা ফেলার সুবিধা রাখা হবে। এরপর সেই চাবি উপজেলা প্রশাসকের কাছে গচ্ছিত রাখা হবে। বছরশেষে তার এবং অভিভাবকদের উপস্থিতিতেই ব্যাংক মালিক শিক্ষার্থীর কাছে অক্ষত অবস্থায় ‘ব্যাংকটি’ ফেরত দেয়া হবে। অভিভাবক ব্যাংকে জমানো সেই টাকায় শিক্ষার্থীর ভর্তি, সেশন ফি প্রদান, বই-খাতা, পোশাক কেনা ইত্যাদির সংস্থান করবেন।
পরিচিতি : সিনিয়র সাংবাদিক/ফেসবুক থেকে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত