প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

অবহেলা আর অয়ত্নে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার পৈরতলা গণকবর

ডেস্ক রিপোর্ট : মহান মুক্তিযুদ্ধে মা ও মাটিকে রক্ষা করতে যারা নিজের জীবন বিসর্জন দিয়ে গিয়েছিলেন এরকম অনেক শহীদ মুক্তিযোদ্ধা আজ চিরনিদ্রায় ঘুমিয়ে আছেন অনেকটাই অবহেলা আর অনাদরে। তাদের স্মৃতিতে নির্মিত স্থাপনাগুলো রয়েছে একেবারেই বেহাল দশায়। এরকম একটি চিত্র শহরের পৈরতলা গণকবর। এখানে মুক্তিযোদ্ধাদের নামফলক ও স্মৃতিসৌধ একেবারেই নাজুক।

সংশ্লিষ্ট অধিদপ্তর প্রয়োজনে লোকবল নিয়োগ করে হলেও শহীদদের মর্যাদা এই গণকবরটিকে রক্ষার দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী ও মুক্তিযোদ্ধারা।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, বেহাল দশার এ চিত্র। জঙ্গলে পরিণত হয়েছে পৈরতলা গণকবরটি। যেখানে-সেখানে পড়ে আছে মাদক সেবনের আলামত। মানুষের মল পড়ে আছে গণকবরের মূল বেদিতে। শহীদদের সমাধিস্থলের শ্বেতপাথরে খোদাই করা নামফলকটিও নিয়ে গেছেন দুর্বৃত্তরা। পৌর এলাকায় হলেও কোনো সড়ক নির্মিত হয়নি। ফলে কাদা মাড়িয়ে যেতে হয় এই গণকবরে।

স্থানীয় বাসিন্দা কুুুদ্দুস মিয়া বলেন, সরকার গণকবরটি সংরক্ষণে কয়েক বছর আগে উদ্যোগ নেয়। তবে ইটের প্রাচীর নির্মাণের পর সে কাজ আর এগোয়নি। গণকবরের পাশে বসবাস করা কয়েকজন প্রতিবেশি বলেন, গণকবরটির সংস্কারে জনপ্রতিনিধিরা বার বার আশ্বাস দিলেও তা বাস্তবায়িত হয়নি।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার হারুন-অর রশিদ বলেন, আমরা চাই পৈরতলা গণকবরসহ মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিবিজড়িত ব্রাহ্মণবাড়িয়ার সকল স্থাপনা রক্ষণাবেক্ষণে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অধীনে লোকবল নিয়োগ করবে সরকার। বর্তমানে বিভিন্ন স্থানে মুক্তিযোদ্ধাদের স্মৃতিবিজড়িত স্থাপনাগুলো অসম্মানিত হচ্ছে, তা আমাদের জন্য কষ্টদায়ক।

জেলা প্রশাসক রেজওয়ানুর রহমান বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মুক্তিযুদ্ধের অনেক স্মৃতি ছড়িয়ে রয়েছে। যেসব স্থাপনা অযত্নে ও অবহেলায় পড়ে আছে, সেগুলোর বিষয়ে সরকারের সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ও কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কথা বলবো। ইত্তেফাক

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ