প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

যশোর জেলা আ.লীগ নেতা শরীফ আব্দুর রাকিব আর নেই

যশোর প্রতিনিধি : যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ও জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি অ্যাডভোকেট শরীফ আব্দুর রাকিব আর নেই (ইন্না লিল্লহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজেউন)। বৃহস্পতিবার রাত ১০ টায় রাজধানী ঢাকার এ্যাপোলো হাসপাতালে তিনি মারা যান।

বৃহস্পতিবার রাত নয়টার সময় রাজধানীর অ্যাপোলো হাসপাতালের ডাক্তাররা তার লাইফ সাপোর্ট খুলে দেন। এর প্রায় এক ঘণ্টা পর রাত দশটায় ডাক্তাররা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

গত বুধবার রাতে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার পর রাকিবকে অ্যাপোলো হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তখন থেকে তাকে সিসিইউতে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। রাকিবের স্ত্রী সাবেক সংসদ সদস্য আলেয়া আফরোজ এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মৃত্যুকালে শরীফ আব্দুর রাকিবের বয়স হয়েছিল ৬৩ বছর। গোপালগঞ্জ জেলা সদরের গোপীনাথপুরের ছেলে রাকিব ১৯৭২ সালে পড়াশুনার সূত্রে যশোর আসেন। যশোর সরকারি মাইকেল মধুসূদন (এম এম) কলেজে ছাত্রলীগের রাজনীতিতে সম্পৃক্ত হন তিনি। এর পর আওয়ামী লীগের রাজনীতিতে দীর্ঘ পথচলা তার। একটানা ১৮ বছর তিনি যশোর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন।

এরই মাঝে যশোর জেলা আইনজীবী সমিতির একাধিকবার সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন শরীফ আব্দুর রাকিব। মৃত্যুর আগ পর্যন্ত তিনি যশোর আইনজীবী সমিতি ও রাইটস যশোরের সভাপতি ছিলেন।

ছোট শ্যালক শহিদ হোসেন বাবু ও তার স্ত্রী শাওলী সুলতানা জানান, বুধবার রাত ১১টার দিকে হৃদরোগে আক্রান্ত হন শরীফ আব্দুর রাকিব। সে সময় তিনি রাজধানীর উত্তরায় বড় মেয়ে মেহনুমা জেবিন রাখির বাসায় ছিলেন। রাত সাড়ে ১২টার দিকে তাকে গুলশানের অ্যাপোলো হাসপাতালে নেওয়া হয়। তখন থেকেই তিনি হাসপাতালটির আইসিসিইউতে ছিলেন।

শরীফ আব্দুর রাকিব বেশ কয়েক বছর ধরে কিডনিজনিত রোগে ভুগছিলেন। একদিন পর পর তাকে ডায়ালাইসিস নিতে হতো।

অ্যাড.রাকিব স্ত্রী, দুই মেয়েসহ অসংখ্য আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। ১৯৯৬ সালে আওয়ামীলীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসলে তার স্ত্রী আলেয়া আফরোজ সংরক্ষিত আসনের সংসদ সদস্য ছিলেন। বড় মেয়ে রাখি দন্তচিকিৎসক। ছোট মেয়ে নওশাবা জেবিন রিয়া বুটিক ব্যবসায়ী। দুই মেয়েই ঢাকায় বসবাস করেন। বড় জামাই আসাদুজ্জামান বাবু সাতক্ষীরা সদর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান। ছোট জামাই খালিদ বিন শামস পাইলট।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত