প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশনের আল্টিমেটাম
দাবি না মানলে ২৭ ডিসেম্বর মহাসমাবেশ

ডেস্ক রিপোর্ট : ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে একদফা দাবি মেনে না নিলে ২৭ ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে মহাসমাবেশের ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ পৌরসভা সার্ভিস এসোসিয়েশন, ঢাকা বিভাগ।

রাষ্ট্রীয় কোষাগার থেকে বেতন-ভাতা, পেনশন ও অন্যান্য সুযোগ প্রদাণের দাবিতে বৃহষ্পতিবার সকালে কেন্দ্রীয় কমিটির ঘোষিত কর্মসূচির আলোকে ঢাকা বিভাগের কর্মী সমাবেশ নারায়ণগঞ্জ জেলার সোনারগাঁও পৌরসভা অডিটোরিয়ামে অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে ঢাকা বিভাগের ৮ জেলার ৪০ পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারী অংশ নেয়।

এসোসিয়েশনের ঢাকা বিভাগীয় কমিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি তাজেল হোসেন হাওলাদারের  সভাপতিত্বে এবং বিভাগের সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার ম,ই তুষার এর  সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত কর্মী সভায় প্রধান অতিথি ছিলেন সোনারগাঁও পৌরসভার মেয়র মোঃ সাদেকুর রহমান।

বিশেষ অতিথি ছিলেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা প্রকৌশলী জেড এম আনোয়ার। প্রধান বক্তা ছিলেন সংগঠণের কেন্দ্রীয় কার্য নির্বাহী কমিটির সভাপতি আব্দুল আলীম মোল্যা। এছাড়া কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির নেতৃবৃন্দের মধ্যে বক্তব্য রাখেন সিনিয়র সহ-সভাপতি আব্দুস সাত্তার, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মোঃ শাহজাহান কবির, সাংগঠণিক সম্পাদক মোঃ বাবুল হোসেন, ময়মনসিংহ বিভাগীয় সভাপতি মোঃ কামরুল হক, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক কামাল হোসেন ও মোঃ বিল্লাল হোসেন, সহ-মহিলা বিষয়ক সম্পাদক তন্দ্রা ইয়াছমিন, ঢাকা বিভাগীয় সহ-সভাপতি ওয়ালী মাহমুদ, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দুলাল মোড়ল, সাংগঠণিক সম্পাদক আলী আকবর রাজা, সমাজ কল্যাণ সম্পাদক ইয়াছিন মিয়া, নারায়ণগঞ্জ জেলা সভাপতি আব্দুল মতিন, সাধারণ সম্পাদক জাবেদ মিয়া, ঢাকা বিভাগীয় সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোহাম্মদ ফোরকান, সহ-দপ্তর সম্পাদক মোঃ ইয়াছিন কবির, সহ-অর্থ সম্পাদক মোহাম্মদ উল্যাহ প্রমুখ।

প্রধান বক্তা এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আব্দুল আলীম মোল্যা তার বক্তব্যে বলেন, দেশের ৩২৬ পৌরসভার ন্যায় ঢাকা বিভাগের ৪০ পৌরসভায় বেতন, পিএফ, গ্রাচুইটি, সম্মানী এবং অন্যান্য বকেয়ার  পরিমাণ প্রায় ৭৭ কোটি টাকা। পাশাপাশি যে ৪০ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী অবসরে গেছেন তাদের বকেয়ার পরিমাণ প্রায় ১৫ কোটি টাকা। পেনশনের টাকা না পেয়ে অনেকে অর্ধাহারে-অনাহারে আছে। আবার কেউবা অসুস্থ হয়ে মৃত্যুর সাথে পাঞ্জা লড়ছে। অথচ তারা তাদের পাওনা পাচ্ছেন না। দেশের প্রায় ২২৬ পৌরসভার বেতন-ভাতা ২-৮-২৬-৪২ হতে ৫৮ মাস পর্যন্ত  বাকি রয়েছে। মোট বেতন বকেয়ার পরিমাণ ৫১৬ কোটি টাকা এবং অবসরে যাওয়া ৭৬৯ জন কর্মচারীদের বকেয়া পাওনা ১২৫ কোটি টাকা।

তিনি বলেন, ৩২৬ পৌরসভার ৩২৫০০ কর্মকর্তা-কর্মচারীর সব মিলিয়ে এ খাতে বছরে বরাদ্দ প্রয়োজন ৯৫০ কোটি টাকা। যা সরকার ইচ্ছে করলেই দিতে পারে। দীর্ঘদিন কর্মচারীরা বেতন-ভাতা না পাওয়ায় পৌরসভাসমূহ একটি অচল স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানে পরিণত হয়েছে। এ পরিস্থিতি অব্যাহত থাকলে অদূর ভবিষ্যতে শতভাগ পৌরসভা অচল হওয়ার আশংকা রয়েছে। এ কারণে বর্তমানে চরম আর্থিক দৈন্যতায় থাকা দেশের ৩২৬ পৌরসভাকে আরো গতিশীল ও উন্নয়নশীল করার লক্ষ্যে পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীগণকে কেন্দ্রীয় সরকারের রাজস্ব কোষাগার হতে বেতন-ভাতাসহ অন্যান্য সুযোগ সুবিধা প্রদাণের সময়োপযোগি সিদ্ধান্ত গ্রহণ করে আগামী ২৬ ডিসেম্বরের মধ্যে একদফা দাবি মেনে নেওয়ার জন্য তিনি সরকারের প্রতি জোর দাবি জানান। অন্যথায় ন্যায্য দাবি আদায়ে এবং জীবন বাঁচাতে আগামী ২৭ ডিসেম্বর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে পূর্বঘোষিত মহাসমাবেশে যে কোন কঠোর কর্মসূচি দিতে বাধ্য হবে দেশের ৩২৫০০ কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে সংগঠণের ঢাকা জেলা সভাপতি মোঃ শামসুদ্দিন, সম্পাদক মোঃ মোরশেদ আলম, গাজীপুর জেলা সভাপতি হরিপদ রায়, সম্পাদক মোঃ মাসুদুজ্জামান, নরসিংদী জেলা সভাপতি প্রকৌশলী মনিরুজ্জামান, মুন্সিগঞ্জ জেলা সভাপতি মোঃ আলাউদ্দিন আহাম্মেদ, সম্পাদক মোঃ মাহবুবুর রহমান, মানিকগঞ্জ জেলা সভাপতি প্রকৌশলী বিল্লাল হোসেন, কিশোরগঞ্জ জেলা সভাপতি প্রকৌশলী বাদশা আলমগীর, সম্পাদক মোঃ আনোয়ার হোসেনসহ ৪০ পৌরসভার সচিব, ইঞ্জিনিয়ার, ইউনিট কমিটির সভাপতি, সম্পাদক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত