প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ফিলিস্তিনের সমর্থনে কলকাতায় লাখো মানুষের সমাবেশ

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ফিলিস্তিনে আগ্রাসন বন্ধের দাবিতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গের রাজধানী কলকাতায় জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে।

বৃহস্পতিবার কলকাতা ধর্মতলায় রানী রাসমণি এভিনিউয়ে অনুষ্ঠিত ওই সমাবেশে রাজ্যের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এক লাখের ও বেশি মানুষ যোগ দেন।

সমাবেশ থেকে ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্র ঘোষণা করা, ফিলিস্তিনিদের উপরে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের আগ্রাসন বন্ধ করা, ইহুদিবাদী ইসরাইল কর্তৃক জবরদখলকৃত ফিলিস্তিনিদের ভূমি ফিরিয়ে দেয়া এবং অত্যাচারী ইসরাইলের বিরুদ্ধে জাতিসংঘের কঠোর পদক্ষেপের দাবি জানানো হয়।

জমিয়তে উলামায়ে হিন্দের পশ্চিমবঙ্গের সভাপতি ও রাজ্যের গ্রন্থগার ও জনশিক্ষা দফতরের মন্ত্রী মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ‘আজকের এই লড়াই, কোনো রাজনৈতিক লড়াই নয়, এটা আন্তর্জাতিক লড়াই। এটা পৃথিবীর অস্তিত্বের লড়াই। আমেরিকা ও তার সাগরেদ ইহুদিবাদী ইসরাইল আগুন নিয়ে খেলা করছে তাতে কোনো সন্দেহ নেই।’

তিনি জাতিসংঘের অধিবেশন নিয়ে মার্কিন তৎপরতাকে ‘ধৃষ্টতা’ বলে অভিহিত করেন। তিনি বলেন, “আমরা বিশ্বাস করি ফেরাউন, নমরুদসহ পৃথিবীর বড় বড় শক্তি ধ্বংস হয়েছে- তার কারণ হলো অহংকার ও অত্যাচার। এখনো আমেরিকার সুযোগ আছে, এখনো ইসরাইলের ভাবার সুযোগ রয়েছে, নইলে এর ফায়সালা আমরা করবো না, এর ফায়সালা আল্লাহ্ করবেন।”

এ নিয়ে মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী বলেন, “আজ পশ্চিমবঙ্গ জমিয়তে ওলামায়ে হিন্দের পক্ষ থেকে কোলকাতায় অনুষ্ঠিত শান্তিপূর্ণ প্রতিবাদ সমাবেশে আমরা ফিলিস্তিনকে স্বাধীন রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দেয়ার দাবি জানিয়েছি। ফিলিস্তিন থেকে দখল করে নেয়া সম্পত্তি ইসরাইলকে ফেরত দিতে হবে।

ইসরাইলের অত্যাচার ও অবিচারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘ শক্ত হয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করুক। আমরা ভারত সরকারের কাছে দাবি রেখেছি- ফিলিস্তিনের সঙ্গে আমাদের নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে, সেখানে আমেরিকা যে অন্যায় করছে সরকার তা প্রকাশ্যে বলুক।”

মাওলানা সিদ্দিকুল্লাহ চৌধুরী বলেন, “ফিলিস্তিনিদের জন্য আগামীকাল রাজ্যে কমপক্ষে ২০ হাজার মসজিদে দোয়া দিবস পালিত হবে। মসজিদের বাইরে প্রতিবাদ সমাবেশও হবে। আমরা অঙ্গীকার করেছি- বায়তুল্লাহ শরীফ, মসজিদে নববী ও মসজিদে আকসা রক্ষার জন্য প্রাণ দিতে হলেও আমরা দেবো। আমরা এ ব্যাপারে সর্বোচ্চ ত্যাগ স্বীকার করতে প্রস্তুত।”

কোলকাতার সমাবেশে জমিয়তের সর্বভারতীয় সভাপতি আমীরুল হিন্দ ক্বারি মুহাম্মদ উসমান মুনসুরপুরি, রাজ্য সাধারণ সম্পাদক মুফতি আব্দুস সালাম, সম্পাদক মুফতি রফিকুল ইসলাম, সম্পাদক মুফতি ইমদাদুল ইসলাম, জমিয়তের রাজ্য প্রেস সচিব ইনযিমাম উল হক প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। সূত্র : পার্সটুডে

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত