প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে ইইউ’র ৭ দফা, পাশে আছে হাঙ্গেরি ও ব্রিটেন

লিহান লিমা : ইউরোপীয় মূল্যবোধ ও আইনের শাসন লঙ্ঘনের অভিযোগে পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে লিসবন চুক্তির সাত নম্বর সূত্র কার্যকরের সুপারিশ করেছে ইউরোপিয় ইউনিয়ন কমিশন। বিচার বিভাগীয় সংস্কার ও আইনি পদক্ষেপ নিয়ে ইইউ প্রশাসন দেশটির তিনবার সর্তক করার পর সেটি উপেক্ষা করে এই প্রস্তাব দেয়া হয়।
ইইউর সদস্যদেশগুলিকে এখন চার-পঞ্চমাংশ সংখ্যাগরিষ্ঠতায় সিদ্ধান্ত নিতে হবে, তারা কমিশনের সাত নম্বর দফা চালু করার সুপারিশ সমর্থন করে কিনা। আপাতত সতর্কতামূলকভাবে এটি জারি করা হলেও পরে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা, এমনকি ইইউ-তে পোল্যান্ডের ভোটাধিকার স্থগিত রাখা যেতে পারে।
ইইউ কমিশন জানায়, ‘গত দুই বছর ধরে পোল্যান্ডে বিচারবিভাগীয় সংস্কারের ফলে আইনের শাসন গুরুতরভাবে ব্যাহত ও ইইউ’র সার্বজনীন মূল্যবোধ লঙ্ঘিত হওয়ার গুরুতর ঝুঁকি আছে। দেশটির বিচার ব্যবস্থা এখন সংখ্যাগরিষ্ঠ শাসক দলের রাজনৈতিক নিয়ন্ত্রণে।’
পোল্যান্ডের এই বিতর্কিত সংস্কারগুলোর মধ্যে রয়েছে সুপ্রিম কোর্টের বিচারকদের নিয়োগে প্রেসিডেন্টকে অধিকতর ক্ষমতা দেওয়ার চেষ্টা, নির্বাচনী ফলাফল নিশ্চিত করার দায়িত্ব সুপ্রিম কোর্টের ওপর বর্তানো।
তবে পোল্যান্ডের প্রেসিডেন্ট অ্যান্ডুজুজ দুদা ইইউ’র বক্তব্য প্রত্যাখান করে বলেন, কমিশনের সাত নম্বর দফা সক্রিয় করার প্রচেষ্টা রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত এবং এটি ভ-ামি। আমরা গণতান্ত্রিক সংস্কারের জন্য কাজ করছি।
অন্যদিকে, ইইউ’র তোপের মুখে পড়লেও পোল্যান্ডের পাশে দাঁড়িয়েছে বন্ধুদেশ হাঙ্গেরি। দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইইউ পার্লামেন্টের সব ধরণের ভেটো প্রয়োগ করে দেশটিকে রক্ষার কথা জানান। ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে’ও ইইউ’র এই ঘোষণার পর পোল্যান্ডের সঙ্গে সম্পর্ক দৃঢ় করার ঘোষণা দেন। ওয়ারশ সফররত মে দেশটির সঙ্গে সামরিক ও নিরাপত্তা সহযোগিতা বৃদ্ধির কথা জানান। ডিডব্লিউ, বিবিসি। সম্পাদনা : পরাগ মাঝি

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বশেষ

সর্বাধিক পঠিত