প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

ডাক্তারের বিল পরিশোধ করতে হবে নেইমারকে : আদালত

স্পোর্টস ডেস্ক: নেইমারের পক্ষ থেকে তার আইনজীবী দাবি করেছিলেন, তার মক্কেলের সুনাম, মর্যাদাহানি করতেই ভুয়া বিল তৈরি করে মামলা ঠুকে দেওয়া হয়েছে। নেইমার চিকিৎসকের প্রকৃত বিলের টাকা কড়ায় গন্ডায় পরিশোধ করেছেন। কিন্তু পিএসজির ব্রাজিলিয়ান তারকার সেই দাবি ধোপে টেকেনি।

তার দ্বিতীয় আপিলওন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত সাও পাওলোর। সঙ্গে নেইমারকে চিকিৎসকের বকেয়া বিলের টাকা পরিশোধ করার নির্দেশ দিয়েছেন আদালত। মানে আইনী লড়াইয়ে হেরে গেলেন নেইমার। চিকিৎসকের বকেয়া বিলের টাকা তাকে দিতেই হচ্ছে!
না, টাকার অঙ্কটা বড় নয়। বকেয়া বিল ও ক্ষতিপূরণ মিলিয়ে নেইমারকে জরিমানা হিসেবে গুণতে হচ্ছে মাত্র ৩ হাজার ৯০০ ইউরো। বার্ষিক বেতনই যার ৪৫ মিলিয়ন ইউরো, তার জন্য এই টাকা হাতের ময়লা!

কিন্তু সামান্য এই টাকার জন্যই নেইমারকে বিসর্জন দিতে হলো মানসম্মান। নিজের সন্তানকে দুনিয়ার আলো দেখিয়েছেন যিনি, সেই চিকিৎসকের বিল না দেওয়ার অভিযোগেই কিনা নেইমারকে আদালতপাড়ায় যেতে হলো!

ঘটনাটা ৬ বছর আগের। নেইমারের ছেলে ডেভি লুকারের জন্ম হয় ব্রাজিলের সাও পাওলোর একটি বেসরকারি ক্লিনিকে। নেইমারের সাবেক বান্ধবী ক্যারোলিনা দান্তাস জন্ম দেন এই ছেলেকে। সফল অস্ত্রোপচার করে ছেলে ডেভি লুকাকে দুনিয়ার মুখ দেখান ডাক্তার হারবার্ট ক্রেমার।

অস্ত্রোপচারের আগে নেইমার এবং তার বান্ধবী ক্যারোলিনা, দুজনেই চিকিৎসা তথা হাসপাতাল বিলের টাকা পরিশোধের জন্য অঙ্গীকার করেন। নেইমার বিলের অংশ বিশেষ পরিশোধও করেন। কিন্তু বাকি টাকা পরিশোধে অস্বীকৃতি জানান। পরে নেইমারের বাবা নেইমার সান্তোস সিনিয়র দাবি করেন, ডাক্তার ক্রেমারের তৈরি বিলের অঙ্কটা প্রকৃত বিলের চেয়ে অনেক বেশি।

ডাক্তার অন্যায়ভাবে বেশি টাকা হাতিয়ে নেওয়ার জন্য ভুয়া বিল তৈরি করেছে। কাজেই সচেতন মানুষ হিসেবে তারা ডাক্তারের অন্যায় মেনে নিতে পারেন না। তাই বিলের পুরো টাকা তারা পরিশোধ করেননি। প্রকৃত বিল যা, সেটাই তারা পরিশোধ করেছেন।

ডাক্তার ক্রেমারও সহজে হাল ছেড়ে দেওয়ার পাত্র নন। বকেয়া বিলের টাকার সঙ্গে ক্ষতিপূরণ মিলিয়ে ৩ হাজার ৯০০ ইউরো দাবি করে নেইমারের বিরুদ্ধে আদালতে মামলা ঠুকে দেন তিন। গত ৬ বছর ধরে সেই মামলা চলছিল। অবশেষে তার নিষ্পত্তি হলো নেইমারের হারের মধ্যদিয়ে।
নেইমার বা তার পক্ষ থেকে আদালতের এই রায়ের বিষয়ে কোনো প্রতিক্রিয়া এখনো পাওয়া যায়নি। আদালতের নির্দেশ মেনে, জরিমানার এই টাকা নেইমার পরিশোধ করেন কিনা, সেটাই এখন দেখার।

দুনিয়ার এতো বড় ফুটবলার, সেই তিনিই কিনা নিজের ছেলের জন্মের সময়কার চিকিৎসা বিলের টাকা দিতে অস্বীকার করছেন! এই অপবাদের ভয় তো আছেই। তাছাড়া তার সেই ছেলে দ্রুতই বড় হয়ে উঠছে। বান্ধবী ক্যারোলিনার সঙ্গে সম্পর্ক চুকেবুকে গেলেও ছেলে নেইমারের সান্নিধ্যেই বেড়ে উঠছেন।

৬ বছর বয়সী লুকা এরই মধ্যে বাবার সঙ্গে ফুটবলের অনুশীলন শুরু করে দিয়েছেন। ব্যাপারটা চলতে থাকলে ছেলেও নিশ্চয় একদিন জেনে ফেলবেন। উটকো ঝামেলাটা মিটিয়ে ফেলতে নেইমারও নিশ্চয় দ্রুতই জরিমানার টাকাটা পরিশোধ করে দেবেন। গোল

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত