প্রচ্ছদ

সর্বশেষ খবর :

বান্দরবানে বর্ণাঢ্য আয়োজনে ঐতিহ্যবাহী রাজপুণ্যাহ মেলা শুরু

বান্দরবান প্রতিনিধি : বান্দরবানে বর্ণাঢ্য আয়োজনের মধ্য দিয়ে বোমাং সার্কেলের ১৪০তম ঐহিত্যবাহী রাজপুণ্যাহ (পইংজ্রা) মেলা শুরু হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে শহরের রাজবাড়ি মাঠে ১৭তম বোমাং রাজা ইঞ্জিনিয়ার উ চ প্রু চৌধুরী অস্থায়ী রাজমঞ্চে হেডম্যান, কারবারী ও প্রজাদের কাছ থেকে রাজকীয় কায়দায় খাজনা আদায়ের মাধ্যমে মেলার উদ্বোধন করেন।

এসময় হাতে স্বর্ণখচিত তলোয়ার ও রাজকীয় পোশাকে রাজা উ চ প্রু মঞ্চে উঠার সঙ্গে সঙ্গে প্রজারা দাঁড়িয়ে রাজাকে সম্মান জানায়। পরে সার্কেলের হেডম্যান, কারবারী, রোয়াজারা একে একে রাজাকে কুর্নিশ করে জুম খাজনা ও উপঢৌকন দেন। মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন- পার্বত্য চট্টগ্রাম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী বীর বাহাদুর উশৈংসিং এমপি, অর্থ মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি ড. মো. আবদুর রাজ্জাক এমপি, চট্টগ্রাম সেনা রিজিয়নের জিওসি জাহাঙ্গীর কবির তালুকদার, ৬৯ পদাতিক ব্রিগেডের কমান্ডার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল যুবায়ের সালেহীন, বান্দরবান পার্বত্য জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ক্য শৈ হ্লা, বান্দরবান জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিক, পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায় প্রমুখ।

এছাড়াও সেনাবাহিনী, বিজিবিসহ বিভিন্ন প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এসময় উপস্থিত ছিলেন। প্রতিবছর প্রায় ১৫ হাজার জুমিয়া পরিবারের কাছ থেকে নব্বই হাজার টাকা খাজনা আদায় করা হয়। তন্মধ্যে ৪২ শতাংশ রাজা, ২১ শতাংশ হেডম্যান ও ২৭ শতাংশ রাজস্ব সরকার পেয়ে থাকে। আনন্দঘন পরিবেশে শান্তিপূর্ণভাবে ঐতিহ্যবাহী রাজপুণ্যাহ মেলা আয়োজনে সবার সার্বিক সহযোগিতা কামনা করেন রাজা। এদিকে, রাজপুণ্যাহ দেখতে ভিড় জমিয়েছেন দেশি-বিদেশি অসংখ্য পর্যটক।

বোমাং সার্কেলের ১০৯টি মৌজার হেডম্যান কারবারীরা রাজপুণ্যাহ উপলক্ষে বান্দরবানে এসে পৌঁছেছেন। তারা বাৎসরিক খাজনার পাশাপাশি নানা রকম উপঢৌকন দেন রাজা বাহাদুরকে।

তিন দিনব্যাপী রাজপুণ্যাহ মেলায় প্রতিবারের মতো এবারও নানা বিনোদনের আয়োজন করা হয়েছে। তার মধ্যে রয়েছে সার্কাস, যাত্রাপালা, পুতুল নাচ, মৃত্যুকূপসহ নানা আয়োজন।

এক্সক্লুসিভ রিলেটেড নিউজ

সর্বাধিক পঠিত